আশুগঞ্জে বাঁধ ভেঙে তলিয়ে গেছে ফসলি জমি

|

আশুগঞ্জে বাঁধ ভেঙে তলিয়ে গেছে ফসলি জমি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জের সোহাগপুর এলাকায় বিএডিসির বাঁধ ভেঙে পানিতে তলিয়ে গেছে প্রায় ৭০ থেকে ৮০ একর ধানী জমিসহ মাছ চাষের পুকুর। এতে প্রায় শতাধিক কৃষক দিশেহারা হয়ে পড়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

আশুগঞ্জ বিএডিসি অফিস জানায়, আজ দুপুর আড়াইটার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের আশুগঞ্জ উপজেলার সোহাগপর গ্রামের আব্বাস উদ্দিন খান সড়কের কাছে মাটির বাঁধ ভেঙে যায়। খবর পেয়ে আশুগঞ্জ বিএডিসির কর্মচারীরা বিএডিসির প্রধান স্লুইস গেইট বন্ধ করে দেয়। ততক্ষণে প্রায় ৭০ থেকে ৮০ একর ধানী জমি পানিতে তলিয়ে যায়।

ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকরা জানান, আমার কৃষি জমিসহ পুকুরের অন্তত ছয় থেকে সাত লাখ টাকার মাছ পানিতে ভেসে গেছে। এতে আমি নিঃস্ব হয়ে পড়েছি। আমি এ বিষয়ে সরকারের কাছে ক্ষতিপূরণ দাবি করছি। ক্ষতিপূরণ না পেলে পরিবার-পরিজন নিয়ে রাস্তায় নামা ছাড়া কোনো উপায় থাকবে না।

আরেক ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক বলেন, ফোর লেনের কাজ করছে ভারতীয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। তারা বিএডিসির ড্রেইন পরিষ্কার না করে মাটি ভরাট করায় পানি প্রবাহের পথ সরু করে ফেলেছে। এর ফলে এ দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।

বাঁধ ভাঙার কথা স্বীকার করে আশুগঞ্জ বিএডিসির সহকারী প্রকৌশলী মোহাম্মদ খলিলুর রহমান বলেন, আমরা এরই মধ্যে বাঁধের ক্ষতিগ্রস্ত অংশ মেরামতের কাজ শুরু করেছি। আশা করছি আগামীকাল বুধবারের মধ্যে মেরামত কাজ শেষ করে পানি প্রবাহ স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে পারব। তবে কী পরিমাণ ফসলের জমি এবং মাছ চাষের পুকুরের ক্ষতি হয়েছে তা তদন্ত না করে বলা যাবে না।

খবর পেয়ে আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অরবিন্দ বিশ্বাস ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্তদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তিনি বলেন, কৃষকদের ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসকসহ ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করব।









Leave a reply