রংপুরে সালিশ বৈঠকে মারামারি, আহত ৫

|

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, রংপুর:

রংপুরের পীরগাছার যাদুলষ্কর গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধের সালিশ বৈঠকে স্থানীয় ইউপি মেম্বারের উপস্থিততে প্রতিপক্ষের হামলায় ৫ জন আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে দুইজনের অবস্থা আশংকাজনক। এ নিয়ে ওই এলাকার মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। যেকোনো মুহূর্তে তা বড় ধরনের সংঘর্ষে রূপ নেয়ার আশংকা করেছেন এলাকাবাসী।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে, উপজেলার যাদুলষ্কর গ্রামের সাইফুল ইসলামের পুত্র রেজাউল ইসলামের সাথে জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল একই এলাকার আব্দুল জলিল মিয়া ও তার পরিবারের। এরই জের ধরে গতকাল রেজাউলের বাড়ির উঠানে স্থানীয় ইউপি মেম্বারের মধ্যস্থতায় সালিশ বৈঠক হয়। কিন্তু আব্দুল জলিল ও তার লোকজন সালিশ না মেনে রেজাউলের লোকজনের ওপর হামলা চালায়। এতে ৫ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে মুমূর্ষু রেজাউল ও জিয়ারুলকে পীরগাছা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতের পিতা সাইফুল ইসলামের অভিযোগ, এ ঘটনাটি সাথে সাথে পুলিশকে জানানো হলেও তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। এমনকি ঘটনার পর পীরগাছা থানায় অভিযোগ দেয়া হলেও পুলিশ এখন পর্যন্ত মামলা নেয়নি। উল্টো হামলাকারীরা এখন আমাদের পুরো পরিবারকে ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। জীবননাশের হুমকি দিচ্ছে।

পীরগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ আজিজুল ইসলাম জানান, কিছুদিন আগেও সালিশ বৈঠকে একজন বৃদ্ধকে পিটিয়ে মারার ঘটনা ঘটেছে। যাদুলষ্করের ঘটনাটি আমরা তদন্ত করছি। মামলা নেয়ার মতো হলে নিবো। আর ওই এলাকায় উভয়পক্ষের মধ্যকার উত্তেজনা ঠেকাতে বিট পুলিশকে সতর্ক পাহারায় রাখা হয়েছে। কেউ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি করার চেষ্টা করলে কঠোরভাবে তা দমন করা হবে।

ইউএইচ/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply