নতুন প্রজাতির করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা ব্যবহারের পরামর্শ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা’র

|

নতুন প্রজাতির করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা ব্যবহারের পরামর্শ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা'র

নতুন প্রজাতির করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার উদ্ভাবিত ভ্যাকসিন ব্যবহারের সুপারিশ করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। বুধবার এ তথ্য জানায় সংস্থাটির বিশেষজ্ঞ দল।

তারা জানায়, ৬৫ বছরের বেশি বয়সী সবার শরীরেই কার্যকর এই ভ্যাকসিন। এছাড়া ১৮ বছরের ওপর থেকে সবাইকে ভ্যাকসিন দেয়ার পরামর্শও দিয়েছে ডব্লিউএইচও। বিভিন্ন দেশে রোগীদের ওপর চালানো জরিপের ওপর ভিত্তি করে এই তথ্য জানানো হয়।

সংস্থাটির পরামর্শ, প্রথম ডোজ দেয়ার পর দ্বিতীয় ডোজের সময়সীমা ৮ থেকে ১২ সপ্তাহ করার। এতে ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা বাড়বে।

এর আগে দক্ষিণ আফ্রিকায় শনাক্ত হওয়া নতুন প্রজাতির ভাইরাসের বিরুদ্ধে অক্সফোর্ডের টিকা কার্যকর না বলে জানায় দেশটি। এর জেরে টিকা প্রয়োগ স্থগিতও করে তারা।

এদিকে নিম্ন বা স্বল্প উন্নত দেশ গুলোকে কোভ্যাক্সের মাধ্যমে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন সরবরাহের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে ডব্লিউএইচও।









Leave a reply