কারা আগে করোনার টিকা পাবে সংসদে জানালেন প্রধানমন্ত্রী

|

কারা আগে করোনার টিকা পাবে সংসদে জানালেন প্রধানমন্ত্রী

অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে কারা করোনার টিকা পাবেন সেই তথ্য জাতীয় সংসদকে দিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বুধবার (২৭ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে আওয়ামী লীগ দলীয় সংসদ সদস্য আহসানুল ইসলামের (টিটু) এ সংক্রান্ত একটি প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এ তথ্য জানান।

ভারত থেকে ইতোমধ্যে উপহারের ২০ লাখ ও সেরাম ইনস্টিটিউট থেকে কেনা ৫০ লাখ টিকা দেশে পৌঁছানোর প্রসঙ্গ টেনে ওই সংসদ সদস্যের প্রশ্নের জবাবে সরকারপ্রধান বলেন, সেরামের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী আগামী ছয় মাসের মধ্যে সব টিকা পাওয়া যাবে। এর বাইরে প্রয়োজন অনুযায়ী আরও টিকা কেনার পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, সেরাম ইন্সটিটিউটের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী আগামী ছয় মাসের মধ্যে মোট তিন কোটি ডোজ টিকা পাওয়া যাবে। এর বাইরে প্রয়োজন অনুযায়ী আরও টিকা কেনার পরিকল্পনা সরকারের রয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, সেরাম ইন্সটিটিউট থেকে কেনা অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার পাশাপাশি বাংলাদেশ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নেতৃত্বাধীন আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফরম কোভ্যাক্সের আওতায় বিশ্বের ৯২ দেশের মতো বাংলাদেশও মোট জনসংখ্যার ২০ শতাংশের জন্য টিকা পাবে। তাতে তিন কোটি ৪০ লাখ মানুষের জন্য ছয় কোটি ৮০ লাখ ডোজ ভ্যাকসিন আসতে পারে।

সরকারপ্রধান বলেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা ও দেশের প্রেক্ষাপট বিবেচনা করেই টিকাদানের অগ্রাধিকার তালিকা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রথম পর্যায়ে দেশের জনসংখ্যার ৮ দশমিক ৬৮ শতাংশ (মোট এক কোটি ৫০ লাখ) মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে।

কোভিড টিকার অগ্রাধিকারে যারা আছেন:

কোভিড-১৯ স্বাস্থ্যসেবায় নিয়োজিত চার লাখ ৫২ হাজার ২৭ স্বাস্থ্যকর্মী, অনুমোদিত ছয় লাখ বেসরকারি ও প্রাইভেট স্বাস্থ্যকর্মী, দুই লাখ ১০ হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধা, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাঁচ লাখ ৪৬ হাজার ৬২০ সদস্য, সামরিক ও বেসামরিক প্রতিরক্ষা বাহিনীর তিন লাখ ৬০ হাজার ৯১৩ সদস্য আগে টিকা পাবেন।

অগ্রাধিকারের তালিকায় আছেন রাষ্ট্র পরিচালনায় অপরিহার্য ৫০ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী, ৫০ হাজার গণমাধ্যমকর্মী, এক লাখ ৭৮ হাজার ২৯৮ জনপ্রতিনিধি, সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভার দেড় লাখ কর্মচারী, পাঁচ লাখ ৪১ হাজার ধর্মীয় প্রতিনিধি, মৃতদেহ সৎকারে নিয়োজিত ৭৫ হাজার ব্যক্তি, জরুরি সেবার (পানি, গ্যাস, পয়ঃনিষ্কাশন, বিদ্যুৎ, ফায়ার সার্ভিস, পরিবহনকর্মী) চার লাখ কর্মী, স্থল, নৌ ও বিমানবন্দরের দেড় লাখ কর্মী, এক লাখ ২০ হাজার প্রবাসী অদক্ষ শ্রমিক।

জেলা উপজেলায় কর্মরত ৪ লাখ জরুরি সেবার সরকারি কর্মচারী, এক লাখ ৯৭ হাজার ৬২১ জন ব্যাংক কর্মকর্তা-কর্মচারী, স্বল্প রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার (যক্ষ্মা, এইডস, ক্যান্সর) ছয় লাখ ২৫ হাজার জনগোষ্ঠী, ৬৪ থেকে ৭৯ বছর বয়সী এক কোটি তিন লাখ ২৬ হাজার ৬৫৮ ব্যক্তি, ৮০ বছর ও তদূর্ধ্ব ১৩ লাখ ১২ হাজার ৯৭৩ জনগোষ্ঠী, জাতীয় দলের খেলোয়াড় ২১ হাজার ৮৬৩ জন আগে টিকা পাবেন।









Leave a reply