সন্ত্রাসীর পা ভেঙ্গে দু’চোখ নষ্ট করে দিলো অতিষ্ঠ এলাকাবাসী

|

বাগেরহাট প্রতিনিধি:

বাগেরহাটের শরণখোলার পল্লীতে সাইফুল ইসলাম মোল্লা (৩৫) নামে এক সন্ত্রাসীর কর্মকাণ্ডে অতিষ্ঠ হয়ে তার পা ভেঙ্গে দুই চোখ নষ্ট করে দিয়েছে এলাকাবাসী।

রোববার ভোর রাতে উপজেলার মঠেরপাড় গ্রামের ফসলের মাঠ থেকে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে শরণখোলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহত সাইফুল খোন্তাকাটা ইউনিয়নের রাজৈর গ্রামের নুরু মোল্লার ছেলে। তার বিরুদ্ধে শরণখোলা থানায় চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি ও মাদকসহ একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে, আহত সাইফুল বলেছে, আমি কোনো অপরাধ করলে আইন অনুযায়ী তার বিচার হবে। ক্ষমতা পেয়ে তারা আমার ওপর যে অত্যাচার করেছে তা কোনো মানুষের কাজ না।

শরণখোলার খোন্তাকাটা ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন খাঁন মহিউদ্দিনসহ এলাকাবাসী জানান, সাইফুল দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় চাঁদাবাজি, চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি ও মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছে। সম্প্রতি রাজৈর এলাকায় চুরি করতে গেলে বাধা দেওয়ায় ইব্রাহিম নামে এক ব্যক্তিকে সে কুপিয়ে আহত করে। এছাড়া একই এলাকার আসলাম হাওলাদারের একটি গর্ভবতী গরুর পায়ের চারটি রগ কেটে দেয়। এর আগে সে আসলামের ঘরে ঢুকে তার মেয়েকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে বিয়ে করে।

এছাড়া সাইফুল পুলিশের হাত থেকে হ্যান্ডকাপসহ পালিয়েছিল এবং বাগেরহাট জেলখানার দেয়াল টপকে পালানোর সময় ধরা পড়ে। সাইফুলের একেরপর এক অপরাধ কর্মকাণ্ডে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ ছিল। তার ভয়ে এলাকার অনেক লোক পালিয়ে থাকতো। সাইফুলের পা ভেঙ্গে দুই চোখ নষ্ট করে দেয়ার ঘটনায় এলাকায় স্বস্তি ফিরে এসেছে।

শরণখোলা চিকিৎসাধীন সাইফুল বলেন, আমি যদি কোনো অপরাধ করি, তার বিচারের জন্য আইন ছিল। তারা ক্ষমতায় বলে যা খুশি তাই করছে। এটা কোন আইনে বিচার? এলাকার ইউনুস, আবুল ও রমজানসহ অনেকেই আমার ওপর এই হামলা করে পা ভেঙ্গে দুই চোখ নষ্ট করে দিয়েছে। আমি এর দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই।

শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুর রহমান জানান, ভোর রাতে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা সন্ত্রাসী সাইফুলকে মারধর করে পা ভেঙ্গে দুই চোখ নষ্ট করে দিয়ে ফসলের মাঠে ফেলে রেখে যায়। পরে স্থানীয় ইউপি সদস্য জাহাঙ্গীর হোসেন তালুকদার তাকে উদ্ধার করে শরণখোলা হাসপাতালে ভর্তি করেন। তার বিরুদ্ধে শরণখোলা থানায় চুরি, ছিনতাই, ডাকাতির প্রস্তুতি ও মাদকসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

শরণখোলা হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. ফয়সাল আহম্মেদ জানান, সাইফুলের দুই চোখ বেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে গেছে ও বাম পা ভেঙ্গে গেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

ইউএইচ/









Leave a reply