স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে গৃহবধূর ট্রেনের নিচে ঝাঁপ

|

ভৈরব প্রতিনিধি:

কুলিয়ারচরে স্বামীর নির্যাতন আর ঋণের বোঝা সইতে না পেরে তাছলিমা বেগম (৩৫) নামের এক গৃহবধূ ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

বৃহস্পতিবার সকাল আনুমানিক আটটার সময় ঢাকাগামী এগারসিন্ধুর ট্রেনের নিচে ঝাপ দিয়ে এ আত্মহত্যার ঘটনা ঘটায় বলে পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়। খবর পেয়ে রেলওয়ে পুলিশ গৃহবধূর ছিন্নভিন্ন লাশ উদ্ধার করে। লাশের ময়নাতদন্তের জন্য কিশোরগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

নিহত গৃহবধূর ছোট বোন মাহমুদা বেগম জানান, বুধবার বিকেলে আমাদের বাড়ি থেকে তাছলিমার স্বামীর বাড়ির জনৈক এক মহিলা তাকে স্বামীর বাড়িতে নিয়ে যায়। আজ সকালে খবর পাই আমার বোন ট্রেনে কাটা পড়ে মারা গেছে। আমাদের ধারণা নির্যাতন আর ঋণের বোঝার কারণেই আমার বোন মারা গেছে। তার স্বামী সবুজ মিয়া বিভাটেকের গাড়ি চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করত।

বিয়ের পর থেকেই আমার বোনের উপর ঋণের বোঝা চাপিয়ে দিয়ে আসছিল স্বামী। ঋণের টাকা নিতে মানুষজনের বাড়িতে আসার খবর স্বামীকে জানালে স্বামী ক্ষিপ্ত হয়ে আমার বোনকে প্রায়ই মারধর করত।

ভৈরব রেলওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক সহিদ মিয়া জানান, খবর পেয়ে তাছলিমা বেগম নামের গৃহবধূর লাশ পুলিশ উদ্ধার করে। মৃত্যুর কারণ এখনো জানা যায়নি। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।









Leave a reply