যমুনা টিভিতে সংবাদ প্রচারের পর সেই নাসিরউদ্দিনের পাশে দাঁড়াতে চেয়েছেন অনেকেই

|

গত ১৪ জানুয়ারি (বৃহস্পতিবার) ‘গ্রহণ করেনি পরিবার: দেশে ফিরে রেমিটেন্স যোদ্ধার ঠাঁই ব্র্যাকের সেইফ হোমে!’ এই শিরোনাম যমুনা টেলিভিশনে নিউজ হওয়ার পর থেকে অনেকেই এগিয়ে আসছেন নাসিরউদ্দিনের পাশে দাঁড়ানোর জন্য। প্রবাস থেকে অনেকই সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিতে চেয়েছেন, যোগাযোগ করেছেন বহু প্রবাসী।

ইতোমধ্যে দুবাই প্রবাসী ওমর ফারুক নামের একজন নাসিরউদ্দিনের হাতখরচ বাবদ ৫ হাজার টাকা প্রদান করেছেন এবং ফারুক নামে একজন বলেছেন, চট্টগ্রামে পৌঁছার পর তার পোশাকসহ যোগাযোগের জন্য মোবাইল প্রদান করবেন এবং রিইন্ট্রিগ্রেশন হিসাবে তিনি যে ধরনের সহায়তা চাই তার সম্পূর্ণ খরচ প্রদান করবেন।

এছাড়া একজন আমেরিকা প্রবাসী বাংলাদেশি নাসিরউদ্দিনকে সার্বিক সহায়তা করার কথা জানিয়েছেন। মাসুদ মুর্শেদ নামের একজন নাসিরউদ্দিনকে চকরিয়ায় অবস্থিত তার হাসপাতালে চাকরি প্রদানের কথা বলে আজ ফোন করেছেন।

ঢাকা মেট্রোপলিটন কাউন্টার টেররিজম ইউনিট থেকে আইনি সহায়তা প্রদানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। সৌদি আরব প্রবাসী কমিউনিটির সদস্যরা আজ নাসিরউদ্দিনকে সহায়তার জন্য জেদ্দা কনসুলেট অফিসে স্মারকলিপি প্রদান করবেন এবং কনসুলেটের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও সচিব বারবার স্মারকলিপি প্রদান করবেন।

তিনি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন যমুনা টেলিভিশনের প্রতি। নিউজটি প্রচারের পর স্বপ্নভঙ্গ মানুষটি আজ মর্যাদা নিয়ে বাঁচার স্বপ্ন দেখছে।

Saifuddin Robin’র ভিডিও প্রতিবেদন









Leave a reply