কামরাঙ্গীরচরে ছুরিকাঘাতে কিশোর নিহত; অভিযুক্তকে পুলিশের হাতে দিলো পরিবার

|

রাজধানীর কামরাঙ্গীরচর এলাকায় দুর্বৃত্তদের ছুরিকাঘাতে সিফাত ভূঁইয়া নামে এক কিশোর নিহত হয়েছে। ঘটনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই স্থানীয় কাউন্সিলরের মধ্যস্থতায় অভিযুক্ত কিশোর শুভকে পুলিশের কাছে তুলে দেয় তার পরিবার। সিফাতের হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়েছে স্বজনরা। তবে পুলিশ এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোন বক্তব্য দেয়নি।

কিশোর সিফাত ভূঁইয়া কাজ করতো কার্টন বোর্ড তৈরির কারখানায়। শুক্রবার সন্ধ্যায় কামরাঙ্গীচরের বরিশাল কলোনী গলিতে কয়েক বন্ধুর সঙ্গে বসেছিল সিফাত। এ সময় শুভ নামের এক কিশোরের সঙ্গে তার কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে, শুভসহ কয়েক জন সিফাতকে ছুরিকাঘাত করলে সে গুরুতর আহত হয়।

আহত অবস্থায় সিফাতকে প্রথমে স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজে নেয়া হয়। সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে রাত ১০টার দিকে চিকিৎসকেরা সিফাতকে মৃত ঘোষণা করেন। নানা-নানীর কাছে বেড়ে ওঠা কিশোরের মৃত্যুতে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন স্বজনরা।

ছুরিকাঘাতের পরই শুভ এলাকা থেকে পালিয়ে যায়। স্থানীয় কাউন্সিলর সাইদুল ইসলাম যোগাযোগ করেন শুভর পরিবারের সাথে। শুভকে ফিরিয়ে এনে কাউন্সিলরের উপস্থিতিতে পুলিশের হাতে তুলে দেয় তার পরিবার।

রাত দেড়টার দিকে ঘটনাস্থলে যায় ক্রাইম সিন দল। সিফাতের সঙ্গে থাকা দুই কিশোরসহ প্রত্যক্ষদর্শীদের জিজ্ঞাসাবাদ করেছে পুলিশ। ঘটনার বিষয়ে কোন আনুষ্ঠানিক বক্তব্য না দিলেও পুলিশ জানিয়েছে প্রাথমিক পর্যায়ের তদন্ত চলছে।











Leave a reply