সীমান্তে দুই বাংলাদেশিকে হত্যায় পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত

|

ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার বেতনা সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহীনি বিএসএফ’র গুলিতে দুই বাংলাদেশি নিহতের ঘটনায় পতাকা বৈঠক করেছে বিজিবি-বিএসএফ।

মঙ্গলবার দুপুরে এ পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকের বিষয়ে ঠাকুরগাঁও ৫০ বিজিবির অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. শহিদুল ইসলাম জানান, এ বিষয়ে বিজিবি’র তদন্ত চলছে। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের পর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। বৈঠকে সীমান্তে গুলি, হত্যা বন্ধের বিষয়ে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বিজিবির পক্ষ থেকে বিএসএফ’কে পত্র দেয়া হয়েছে।

এর আগে সকালে সীমান্তে গরু আনতে গিয়ে বিএসএফের গুলিতে নিহত হয় রবিউল ইসলাম (২৫) ও নাজির উদ্দীন (৩০) নামের দুই বাংলাদেশি গরু ব্যবসায়ী।

মঙ্গলবার ভোরে ভারতের উত্তর দিনাজপুরের ফুলবাড়ি থানার ১৭১ কোয়ালীগড় ক্যাম্পের বিএসএফ জওয়ানদের ছোড়া গুলিতে তাদের মৃত্যু হয়। নিহত রবিউল ইসলাম বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার বড়পলাশবাড়ি গ্রামের ভুকু মিঞার ছেলে এবং নাজির উদ্দীন একই উপজেলার বড়বাড়ি মশালডাঙ্গী গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে।

হরিপুর থানার ওসি এস এম আওরঙ্গজেব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি জানান, মঙ্গলবার ভোর আনুমানিক সাড়ে ৬টার দিকে রবিউল ও নাজির উদ্দীনসহ বেশ কয়েকজন বেতনা সীমান্ত তারকাটা অতিক্রম করে ভারতের অভ্যন্তরে উত্তর দিনাজপুরের ফুলবাড়ি থানা এলাকায় প্রবেশ করলে কোয়ালীগড় ক্যাম্পের বিএসএফ জোয়ানরা তাদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply