দখল মুক্ত হলো নাগরপুর জমিদার বাড়ি

|

নাগরপুরের ঐতিহ্যবাহী চৌধুরিবাড়ি খ্যাত নাগরপুর জমিদার বাড়ি।

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:

জননিরাপত্তার স্বার্থে অবশেষে প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের মাধ্যমে দখল মুক্ত করা হয়েছে টাঙ্গাইলের নাগরপুরের ঐতিহ্যবাহী চৌধুরিবাড়ি খ্যাত নাগরপুর জমিদার বাড়ি।

সোমবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরের পর থেকে দখলমুক্ত করার কার্যক্রম পরিচালনা করেন টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের সিনিয়র কমিশনার উপমা ফারিসা ও নাগরপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুর।

এসময় নাগরপুর মহিলা কলেজের ৮টি ও নাগরপুর শহীদ সামছুল হক বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দখলে থাকা ১টি ভবন উদ্ধার করা হয়। এ সকল ভবনে স্কুল ও কলেজের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা তাদের পরিবারসহ দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছিলেন।

জমিদার বাড়ির মূল ভবনে মহিলা কলেজের কার্যক্রম চললেও এর অন্যান্য ভবনগুলো ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় জননিরাপত্তার স্বার্থেই এ কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়।

প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের পরিচালক জমিদার বাড়ির ভবনগুলো পরিদর্শন করেন এবং জনজীবনের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় ৫ নভেম্বর জেলা প্রশাসনকে অবহিত করেন। পরে জেলা প্রশাসন এর নির্দেশে উপজেলা নিবার্হী অফিসার সিফাত-ই-জাহান নাগরপুর মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ ও শহীদ সামছুল হক বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে ভবন খালি করে দেওয়ার জন্য নোটিশ প্রদান করেন।

নাগরপুর মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ ও শহীদ সামছুল হক বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক জেলা প্রশাসক মহোদয়ের নিকট সময় চান। পরবর্তীতে উপজেলা নিবার্হী অফিসার ১৬ নভেম্বর পুনরায় নোটিশ প্রদান করেন। সোমবার বিকেলে টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সিনিয়র কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উপমা ফারিসা, নাগরপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুর ও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আনিসুর রহমান আনিস ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে যান। এ সময় দখলে থাকা ভবন গুলো দখল মুক্ত করে সিলগালা করা হয়।

এদিকে জনগণের জানমালের নিরাপত্তার স্বার্থে সিলগালাকৃত জরাজীর্ণ ভবনগুলোতে জেলা প্রশাসন এর পক্ষ থেকে জনসাধারণকে অনুপ্রবেশ না করার জন্য সতর্কীকরণ নোটিশ টানিয়ে দেওয়া হয়।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুর জানান, দুর্ঘটনা এড়াতে জনস্বার্থে জরাজীর্ণ ও ঝুঁকিপূর্ণ ভবনে থাকা লোকদের ভবন ছেড়ে দেওয়ার একাধিক তাগিদ দেওয়া হয়। অবশেষে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে সোমবার উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয় এবং আজ মঙ্গলবার সম্পূর্ণভাবে উচ্ছেদ অভিযান সম্পন্ন হয়।









Leave a reply