যুক্তরাষ্ট্রে হঠাৎ টয়লেট পেপার কেনার হিড়িক

|

যুক্তরাষ্ট্রের বেশিরভাগ অঙ্গরাজ্যে টয়লেট পেপার এবং পরিষ্কার সামগ্রী কেনার ধুম পড়ে গেছে। বৃহস্পতিবার ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর সেখানে কারফিউ জারি করেছেন। এরপরই সেখানে টয়লেট পেপার কেনার হিড়িক শুরু হয়। ফ্রেসনো এবং লস অ্যাঞ্জেলসে কস্টকো স্টোরে টয়লেট পেপার শেষ হয়ে গেছে। খবর রয়টার্সের।

খবরে বলা হয়, করোনা মহামারির দ্বিতীয় ঢেউয়ে যুক্তরাষ্ট্রে মানুষের মধ্যে টয়লেট পেপার থেকে শুরু করে সুরক্ষা সামগ্রী কেনা-বেচার হিড়িক পড়েছে। করোনা সংক্রমণ আবারও বাড়ছে যুক্তরাষ্ট্রে। একই সঙ্গে দীর্ঘ হচ্ছে মৃত্যুর মিছিল। এ কারণে বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে নতুন করে কারফিউ এবং লকডাউন জারি করতে বাধ্য হচ্ছে কর্তৃপক্ষ। আতঙ্কে মানুষ টয়লেট পেপার ও নিরাপত্তা সামগ্রীর স্তূপ করছে। কিনছে লাইন দিয়ে।

শুক্রবার ওয়ালমার্ট জানিয়েছে, শুক্রবার বিকালে দেশটির ২২টি অঙ্গরাজ্যে নতুন করে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। সংক্রমণের গতি রোধ করতেই এমন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে। এ কারণে বিভিন্ন শপ ও দোকান থেকে লোকজন প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র কিনে জমা করতে শুরু করেছেন। সবকিছু বন্ধ থাকবে এমন আতঙ্ক থেকেই তারা এমনটা করছেন বলে উলে­খ করা হয়েছে।

অ্যারিজোনার টুকসনের ৩১ বছর বয়সী হুইটলি হ্যাচার নামের এক কর্মকর্তা বলেন, ওয়ালমার্টে লাইজল জীবাণুনাশক এবং টয়লেট পেপার আবারও শেষ হয়ে গেছে। বড় বড় স্টোরগুলোতে লোকজন জিনিসপত্রের খালি শেলফ দেখে আতঙ্কে পড়ে যাচ্ছেন এবং সে কারণেই তারা জিনিসপত্র কিনতে শুরু করে দিয়েছেন।

ইউএইচ/









Leave a reply