সব দোষই কি মেসির?

|

স্প্যানিশ ক্লাব বার্সেলোনার সাথে মেসির সম্পর্কটা হয়ে গেছে নন্দঘোষের মত। বার্সেলনায় যা কিছু হয় বা হয়েছে সবকিছুর দায় ইদানিং মেসির ঘাড়েই পড়ছে। এই যেমন বার্সেলোনায় গ্রিজম্যান মানিয়ে নিতে পারছে না, এই নিয়ে জেরার মুখে পরতে হয়েছিলো মেসিকে; হয়েছে কঠোর সমলোচনাও।

এবার মেসিকে নিয়ে মন্তব্য করেছেন গ্রিজম্যানের সাবেক এজেন্ট এরিক এলহাতস। সম্প্রতি বার্সেলোনায় টিকে থাকতে রীতিমত সংগ্রাম করতে হচ্ছে গ্রিজম্যানকে- এটির দায়ও নাকি মেসিরই। এরিক আরও বলেছেন, বার্সেলোনায় নাকি মেসির ‘ত্রাসের রাজত্ব’ চলে। গ্রিজম্যানের অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ থেকে ক্যাম্প নুয়ে এসে মানিয়ে নেয়ার কাজটা কঠিন হচ্ছে শুধু মাত্র মেসির কারণেই।

এসব ঘটনায় হতাশায় ভুগছেন মেসি। জবাবে তিনি বলেন, সত্যিকার অর্থে ক্লাবের সব সমস্যার কারণ আমি, এই অভিযোগ শুনতে শুনতে ক্লান্তি এবং হতাশ।

বিশ্বকাপ বাছাই পর্বের ম্যাচ শেষে স্পেন বিমানবন্দরে ঘটেছে আরেক বিরক্তিকর ঘটনা। ১৫ ঘণ্টার বিমান ভ্রমণ শেষে লিওনেলকে পড়তে হয়েছে দেশটির কর কর্মকর্তাদের জেরার মুখেও। সেখানে প্রায় ১ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় তাকে। যার বিপরীতে রীতিমতো ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আর্জেন্টাইন এই তারকা।

এই ঘটনা নিয়ে মেসি বলেন, ১৫ ঘণ্টা বিমান ভ্রমণ শেষে, দেখি কর কর্তৃপক্ষ আমার জন্য অপেক্ষা করছে। এটা স্রেফ পাগলামো এবং অবশ্যই বিরক্তিকর। ২০১৬ সালে কর ফাঁকির অভিযোগে মেসিকে ২১ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছিলো স্পেনের একটি আদালত। সেসময় জরিমানা দিয়েই কারাবাস এড়িয়ে ছিলেন এই তারকা ফুটবলার।

এর আগে নিজের অনিচ্ছা সত্ত্বেও বার্সেলোনায় থেকে যেতে হয়েছিলো লিওনেল মেসিকে। এবার ইংলিশ গণমাধ্যমে জোর গুঞ্জন, জানুয়ারির মধ্যবর্তী দলবদলে ম্যানসিটির সঙ্গে চুক্তি পাকাপাকি করতে যাচ্ছেন মেসি। আর সেটি বিনা ট্রান্সফার ফিতেই।









Leave a reply