পর্তুগালের জনগণ জানুয়ারিতে পাবে করোনার ভ্যাকসিন: টেমিডো

|

আসছে বছর জানুয়ারি থেকে করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন পেতে পারে পর্তুগালের জনগণ। দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী মার্তা টেমিডো এক ঘোষণায় এমনই আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। এজন্য একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে, যাতে জানুয়ারি থেকে ভ্যাকসিন বিতরণ শুরু করা যায়।

টেমিডো বলেন, ভ্যাকসিন বিতরণ বয়স্ক ও স্বাস্থ্য সেবা কর্মীদের দিয়ে শুরু করা হবে। তবে বিশেষজ্ঞরা সিদ্ধান্ত নিতে কাজ করছেন যে, কারা প্রথমে ভ্যাকসিনটি গ্রহণ করবে। পাশাপাশি পরিবহন থেকে স্টোরেজ পর্যন্ত কিভাবে করা হবে সেটা নিয়েও এই টাস্কফোর্স সিদ্ধান্ত নেবে। টেমিডো সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, প্রথম যে কোনও একটি টিকা জানুয়ারিতে আসার সম্ভাবনা রয়েছে, আমরা যা চাই তা হল স্টোরেজ, বিতরণ এবং নিরাপদ ব্যবহার নিশ্চিত করার জন্য দেশের প্রস্তুত হওয়া।

এদিকে, ভাইরাসটির বিস্তার মোকাবেলায় গত সপ্তাহে কার্যকর হয়েছিল জরুরি অবস্থা। ১৯১ শহরে রাত্রিকালীন কারফিউ এবং অর্ধ-দিনের লকডাউন সহ বিভিন্ন পদক্ষেপ ছিল এবং এটি ২৩ নভেম্বর পর্যন্ত চলবে।

উল্লেখ্য, মাত্র এক কোটির মত জনগণের দেশ হিসেবে পর্তুগাল তুলনামূলকভাবে কম করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এবং মৃত্যুর রেকর্ড করেছে। তবে বেশিরভাগ ইউরোপীয় দেশগুলোর মতোই সংক্রমণ বাড়ছে এবং স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে চাপের মধ্যে ফেলেছে।









Leave a reply