পটুয়াখালীতে হাতের কবজি কেটে নেয়া আহত সেই শ্রমিকলীগ নেতার মৃত্যু

|

নিহত পটুয়াখালী উপজেলা শ্রমিকলীগের সহ-সভাপতি মো. জুয়েল প্যাদা।

পটুয়াখালী প্রতিনিধি:

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষ কর্তৃক হাতের কবজি কেটে নেয়া আহত উপজেলা শ্রমিকলীগের সহ-সভাপতি মো. জুয়েল প্যাদা (৩৪) মারা গেছেন।

ঘটনার আটদিন পর বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকার বেসরকারি একটি হাসপাতালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন বলে নিশ্চিত করেছেন তার ভাই তুহিন প্যাদা।

গত বুধবার রাত আটটার দিকে উপজেলার টিয়াখালী ইউনিয়নের পূর্ব রজপাড়া হাওলাদার বাড়ির সামনে প্রতিপক্ষরা হামলা চালিয়ে জুয়েল প্যাদাকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করার এক পর্যায়ে তার বাম হাতের কবজি কেটে বিচ্ছিন্ন করতে হয়। তাৎক্ষণিকভাবে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় কলাপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে বাংলা হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

সেখান থেকে তার অবস্থার অবনতি হলে ওই রাতেই তাকে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। পরের দিন সকালে জুয়েলকে পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে দুইদিন রাখার পর মহাখালী এলাকার আয়েশা মেমোরিয়াল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর সেখানেই আজ দুপুরে জুয়েল মারা যান।

নিহত জুয়েল পূর্ব টিয়াখালী গ্রামের মো. ফারুক প্যাদার ছেলে এবং সে কলাপাড়া উপজেলা শ্রমিকলীগের সহ-সভাপতি বলে নিশ্চিত করেছেন জেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মিজানুর রহমান।

ওই দিন রাতে আহত জুয়েল প্যাদার ভাই মো. তুহিন প্যাদা জানিয়েছিলেন, তাদের প্রতিপক্ষ বশির চকিদার, শিপন চকিদার ও সোহেল হাওলাদারসহ চার/পাঁচজন স্থানীয় সন্ত্রাসীরা কিছু বুঝে ওঠার আগেই অতর্কিতভাবে জুয়েলের উপর সশস্ত্র হামলা চালিয়ে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে চলে যায়। এ সময় জুয়েলের বাম হাতের কবজি কেটে দেয় ওই সন্ত্রাসীরা। পরে খবর পেয়ে স্থানীয়রা জুয়েলকে উদ্ধার করে কলাপাড়া হাসপাতালে ভর্তি করে।

এদিকে ওই রাতেই পটুয়াখালীর পুলিশ অভিযান চালিয়ে পাশের জেলা বরগুনার আমতলি উপজেলা থেকে বশির ও সোহেলকে আটক করে আদালতের মাধ্যমে জেলখানায় প্রেরণ করে। বর্তমানে তারা পটুয়অখারী কারাগারে আছে।

পরের দিন জুয়েল প্যাদার বাবা ফারুক প্যাদা বাদি হয়ে কলাপাড়া থানায় আটককৃতসহ কয়েক জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন।

অপরদিকে পুলিশ জানায়, মৃত জুয়েলের বিরুদ্ধে হত্যা, অস্ত্র, ডাকাতিসহ মোট আটটি মামলা রয়েছে এবং সে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী। কিছুদিন আগে আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণ বাহিনীর সদস্যরা জুয়েলকে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করলে সে সম্প্রতি জামিনে বের হয়ে আসে এমন তথ্য দিয়ে বৃহস্পতিবার (৫নভেম্বর) পটুয়াখালী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মইনুল হাসান পুলিশ সুপার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন।









Leave a reply