হাতিয়ায় বিদ্যুৎ নেই ৬ দিন, দুর্ভোগ পোহাচ্ছে ছয় হাজার গ্রাহক

|

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় গত শুক্রবার থেকে ৬দিন বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকায় চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে ছয় হাজার বিদ্যুৎ গ্রাহককে।

উপবিভাগীয় প্রকৌশলী ও আবাসিক প্রকৌশলী মো. মশিউর রহমান বলছেন, যান্ত্রিক ত্রুটির সমস্যায় এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

স্থানীয় বিদ্যুৎ অফিস সূত্রে জানা যায়, ৫০০ কেভির ৪টি জেনারেটর ইঞ্জিন পরপর নষ্ট হয়েছে। সর্বশেষ গত শুক্রবার ১ হাজার মেগাওয়াটের ইঞ্জিনটিও বিকল হয়ে পড়ে। ফলে এ উপজেলার সর্বত্র বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। শুধুমাত্র ৫০০ কেভির একটি ইঞ্জিন জেনারেটর দিয়ে উপজেলা পরিষদ এলাকায় নামে মাত্র বিদ্যুৎ সরবরাহ হচ্ছে। এতে করে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন বিদ্যুৎ গ্রাহকেরা।

ইতোমধ্যে ফ্রিজের সংরক্ষণ করা বিভিন্ন সামগ্রী ও জরুরি ওষুধপত্র নষ্ট হতে চলেছে। কম্পিউটার, ফটোস্ট্যাটসহ বিভিন্ন ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম পুরোপুরি বন্ধ হয়ে পড়েছে। ফলে গ্রাহকরা পড়েছে চরম দুর্ভোগে।

বাগেরহাট চাইনিজ অ্যান্ড ফাস্টফুড রেস্টুরেন্টের মালিক জানান, গত কয়েকদিন বিদ্যুৎ সমস্যার কারণে আমার ফ্রিজে থাকা মাছ, গোস্ত, মসলাসহ প্রায় ৩০ হাজার টাকার জিনিস পত্র নষ্ট হয়ে গিয়েছে। একই দুর্ভোগের কথা জানালেন মোহাম্মদিয়া হোটেলের মালিক আয়াত হোসেন জুয়েল।

হাতিয়ায় বড় ফলের আড়তদার জাকের হেসেন বলেন, আমরা ঢাকা থেকে ফল এনে এখানে ফ্যানের মাধ্যমে কুলিং সিস্টেম করতে হয়। গত কয়েকদিন কারেন্ট না থাকায় আমার প্রায় ৫ লক্ষ টাকার উপরে ফল পচে নষ্ট হয়ে গেছে।

উপবিভাগীয় প্রকৌশলী ও আবাসিক প্রকৌশলী মো. মশিউর রহমান জানান, ইঞ্জিন মেরামতের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। তবে ইঞ্জিন মেরামত করে বিদ্যুৎ চালু করতে আরও ১০-১৫ দিন সময় লাগতে পারে।

ইউএইচ/









Leave a reply