প্রেসিডেন্ট কাপের শিরোপা জিতলো মাহমুদউল্লাহ একাদশ

|

প্রেসিডেন্টস কাপ মানেই টপ অর্ডারের ব্যর্থতা। মাঝপথে কারো ইনিংস মেরামত। পেইসারদের দাপট। আর লো স্কোর এরমাঝেই নাজমুল একাদশের ৭ উইকেটে হারিয়ে শিরোপা জিতেছে মাহমুদউল্লাহ একাদশ। লো স্কোরিং ম্যাচে ১৭৪ রানের লক্ষ্যে ৭ উইকেট আর প্রায় ২০ ওভার হাতে রেখে টপকে যায় রিয়াদের দল। ৫ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরা সুমন খান।

ফাইনালে নাজমুল একাদশের ইনিংসে এর সবই ছিলো। টপ অর্ডার আসবেন আর চলে যাবেন। এই পথেই ৬৪ রানেই ৫ উইকেট নেই নাজমুল শান্তদের। মুশফিক-আফিফ না পারলেও এবার মাঝপথের ত্রাতা ইরফান শুক্কুর। খেললেন ৭৭ বলে ৭৫ রানের ইনিংস।

আর প্রতিপক্ষকে ধসিয়ে দেয়ার ভুমিকায় রুবেল হোসেনের না, এদিন সুমন খান। ৫ উইকেট তুলে নিলে ১৭ বল আগেই নাজমুল একাদশ।

তবে লো স্কোরিং ম্যাচেও এই টুর্নামেন্ট থ্রিলারের কমতি ছিলো না। ১৭৪ রানের লক্ষ্যেও রোমাঞ্চের অপেক্ষায় ছিলেন অনেকে। কিন্তু ব্যাটিং এ ব্যর্থতার সমীকরণ বদলে ফেলেন লিটন দাস…তাই তো বদলে ফেলা দলের নামের পাশে দিনশেষে চ্যাম্পিয়নের ট্যাগলাইন।

তাসকিন আল আমিনরা পারেন নি বলেই হাফ সেঞ্চুরি তুলে লিটনের স্কোর 68। জয়ের সেই ভিতের উপর ইমরুল কায়েসের হার না মানা ৫৩ আর অধিনায়ক রিয়াদের ২৩। তাতেই সহজ জয় ২০ ওভার আগেই।

নাজমুলদের তারুণ্যের কাছে হার দিয়ে শুরু করা, মাহমুদউল্লাহেদর টুর্নামেন্ট শেষ শিরোপা জয়ে। প্রস্তুতি ম্যাচ হলেও প্রতিদ্বন্দ্বিতার এমন ঝাঁঝে তাই তো খুশি টুর্নামেন্ট সেরা মুশফিকুর রহিম।

টুর্নামেন্ট সেরা বোলার রুবেল হোসেন, ম্যাচ সেরা পেসার সুমন খান। আর কামব্যাকের স্বীকৃতি পেয়েছেন তাসকিন আহমেদ।









Leave a reply