করোনার প্রভাবে বন্ধ অন্তত ১১৭টি তৈরি পোশাক কারখানা, বেকার ৪৪ হাজার শ্রমিক

|

করোনা শুরুর পর বিশ্বব্যাপী পণ্যের চাহিদা কমে যাওয়ায় রপ্তানিমুখী কারখানাগুলো ব্যাপক চাপে পড়েছে। এর ফলে অন্তত ১১৭টি তৈরি পোশাক কারখানা বন্ধ হয়ে গেছে। এই তথ্য জানিয়েছে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর। বন্ধ হওয়ায় এসব কারখানার ৪৪ হাজার শ্রমিক কাজ হারিয়েছে।

অধিদপ্তর জানায়, বন্ধ হওয়া কারখানার বেশির ভাগই ছোট মূলধনের কারখানা। করোনার ধাক্কায় রপ্তানি আদেশ স্থগিত হওয়ায় আর্থিক চাপ সইতে না পেরে এসব কারখানা বন্ধ হয়েছে।

করোনার ধাক্কায় বাতিল বা স্থগিত হয়েছে ৩০০ কোটি ডলারের রপ্তানি আদেশ। পরিস্থিতি সামাল দিতে কয়েক ধাপে এ খাতের জন্য প্রণোদনা হিসাবে সরকারের পক্ষ থেকে ঋণ সহায়তা দেয়া হয়েছে ১০ হাজার কোটি টাকার বেশি।

যদিও গত জুন থেকে রপ্তানি আদেশ বাড়ার ফলে এখন ভালো অবস্থানে ফিরতে শুরু করেছে তৈরি পোশাক খাত। জুলাই, আগস্ট ও সেপ্টেম্বরে রপ্তানি প্রায় স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে এসেছে। বর্তমানে সব মিলিয়ে ৩ হাজার ৭৫৬টি গার্মেন্টস কারখানা চালু রয়েছ। রপ্তানি আয়ের ৮৪ শতাংশই আসে এ খাত থেকে।









Leave a reply