ডাইনি অপবাদ দিয়ে বৃদ্ধাকে গলাকেটে হত্যা, প্রতিবাদ করায় শিক্ষককেও খুন

|

এক বিধবা বৃদ্ধাকে ডাইনি অপবাদ দিয়ে গলাকেটে হত্যা করে এলাকাবাসী। এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় এক শিক্ষককেও গলা কেটে খুন করা হয়। তারপর দু’‌জনের মাথা শয়তানের উদ্দেশ্য উৎসর্গ করে চলে প্রার্থনা। এ ঘটনা ভারতের আসামের দোকমা থানার রহিমপুরে। নিউজ ১৮।

জানা যায়, রমাবতী হালুয়া। গ্রামের মানুষ মনে করে তিনি ডাইনি। সে নানা মহিলার উপর ভর করে তাদের নিয়ন্ত্রণে আনতে পারে এবং নিজের মত করে তাদের ব্যবহার করাতে পারে। ঘটনার দিন কয়েকজন ধারালো অস্ত্র নিয়ে রমাবতীর বাড়িতে চড়াও হয়। এ ঘটনার প্রতিবাদ করতে এগিয়ে আসে স্থানীয় তরুণ শিক্ষক। এসময় দু’‌জনকেই নৃশংস ভাবে হত্যা করে দুষ্কৃতীরা। তারপর দু’‌জনের মাথা কেটে শয়তানের উদ্দেশ্য উৎসর্গ করে চলে প্রার্থনা।
এসময় রমাবতীর মেয়েকেও মারতে উদ্যত হয় তারা, কোনওমতে পালিয়ে এসে থানায় জানায়। পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে খুনের অস্ত্র ও দেহাংশ উদ্ধার করে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে নয় ‌জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

দু’‌বছর আগে এরকম ঘটনা ঘটে এই থানায়। শিশু চোর সন্দেহে দুই বাঙালি পর্যটককে পিটিয়ে মেরে ফেলে এখানকার অধিবাসীরা।









Leave a reply