পুষ্টিগুণে ভরা জাম্বুরা

|

মৌসুমি ফল জাম্বুরা। মুখরোচক এ ফলটি খেতে যেমন সুস্বাদু তেমনি পুষ্টিগুণে টইটুম্বুর। বছরের একটি নির্দিষ্ট সময়ে পাওয়া গেলেও এ ফলটি নানা ধরনের রোগ প্রতিরোধ করতে সক্ষম। জাম্বুরায় রয়েছে প্রচুর ভিটামিন সি।

বাইরে সবুজ মোটা আবরণের ভেতরে সাদা অথবা হালকা গোলাপি রঙের এ ফলটি খেতে মূলত টক-মিষ্টি। তাই যাদের মুখে রুচির সমস্যা আছে তারা খেতে পারেন এ ফলটি। এছাড়া যাদের ডায়াবেটিসের সমস্যা আছে তাদের জন্য জাম্বুরা বেশ উপকারী।

এছাড়া যারা ডায়েট প্ল্যান করছেন তারা তাদের খাবারের তালিকায় রাখতে পারেন জাম্বুরা। এ ফলটি দ্রুত ওজন কমাতে সাহায্য করে। অন্যদিকে জাম্বুরা আন্ত্রিক, অগ্ন্যাশয় ও স্তন ক্যান্সার প্রতিরোধেও বেশ কার্যকর। এর লিমোনোয়েডনামক উপকরণ ক্যান্সারের জীবাণু ধ্বংস করে এবং এতে থাকা আঁশ মলাশয়ের ক্যান্সার প্রতিরোধেও সহায়তা করে। অন্যদিকে এতে থাকা প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রক্তনালির সংকোচন-প্রসারণের ক্ষমতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

অন্যদিকে যাদের পেটে হজমের সমস্যা আছে কিংবা কোষ্ঠকাঠিন্যতে ভুগছেন তাদের জন্য জাম্বুরা বেশ কার্যকর। এছাড়া জ্বর, সর্দি ও কাশির মতো সমস্যায়ও জাম্বুরা খুব দ্রুত কার্যকারী। তাই করোনাকালীন এ সময় নিজেকে সুস্থ রাখতে কিংবা এ সময়ের সর্দি-কাশি থেকে সুরক্ষা পেতে মৌসুমি এ ফলটি রাখতে পারেন আপনার খাবার তালিকায়। এসব কিছুর পাশাপাশি জাম্বুরা কলেস্টেরোল নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। অন্যদিকে যাদের মুখে প্রায়ই ঘা হয়ে থাকে তারা খুব সহজেই এ সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে খেতে পারেন এই টক-মিষ্টি ফলটি। আর বাজারে খুব সহজেই হাতের নাগালে পাওয়া যায় বিধায় দামেও খুব সস্তা হয়ে থাকে এ ফলগুলো।

তাই তীব্র এ গরমে জাম্বুরার ভর্তা কিংবা জাম্বুরার জুস আপনাকে দিতে পারে গরমে স্বস্তি।

আর আপনি এ সময়েও থাকতে পারেন সুস্থ আর বাড়াতে পারেন খুব সহজে আপনার শরীরের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা, যাতে আপনাকে এ করোনাকালীন সর্দি-কাশির মতো রোগ থেকে রাখতে পারে সুরক্ষিত।









Leave a reply