তুরস্কের ফার্স্ট লেডির সঙ্গে দেখা করে ভারতীয়দের ক্ষোভের মুখে আমির খান!

|

লাল সিং চাড্ডার শ্যুটিংয়ে গত সপ্তাহেই তুরস্কে গিয়েছেন আমির খান। করোনা আবহের মধ্যে আপতত বিদেশেই ছবির শুটিং সারছেন আমির, অক্ষয়রা। লাল সিং চাড্ডার শেষ পর্বের গোটা শুটিংই হবে তুরস্কে। ইস্তাম্বুলে যাওয়ার পর এয়ারপোর্ট, হোটেলে ভক্তদের সঙ্গে আমিরের একাধিক ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। কিন্তু রোববার তুরস্কের ফার্স্ট লেডি এমিনি এরদোগানের সঙ্গে আমির খানের আনুষ্ঠানিক সাক্ষাতের ছবি সামনে আসার পর থেকেই ক্ষুব্ধ হয়েছে ভারতীয় নেটিজেনদের একটা বড় অংশ। খবর হিন্দুস্থান টাইমসের।

বিষয়টিকে মোটেই ভালোভাবে নেয়নি ভারতীয়রা; রীতিমতো চটেছেন তারা। সোশ্যাল মিডিয়ায় তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন এই অভিনেতা। টুইটারে অভিনেতাকে বয়কট করার ডাকও দিয়েছে নেটিজেনদের একাংশ। কেউ কেউ বলছেন, আমির খান এখন আর ভারতের জন্য নিরাপদ নন।

খবরে বলা হয়, ভারতীয় নেটিজেনরা অভিযোগ করেছে, ভারতের বন্ধুরাষ্ট্র ইসরাইলের বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুকে এড়িয়ে গেলেও তুরস্কের ফার্স্ট লেডির সঙ্গে খোশগল্পে মজেছেন আমির। ভারতবিরোধী তুরস্ককে বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন তিনি।

উল্লেখ্য, কাশ্মির ইস্যুতে পাকিস্তানকে খোলাখুলি সমর্থন করেছেন তুরস্কের রাষ্ট্রপতি রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান। সেই কারণে তুরস্কের সঙ্গে ভারতের কূটনৈতিক সম্পর্ক সুখকর নয়।

প্রসঙ্গত, নিজের নতুন সিনেমা ‘লাল সিং চাড্ডা’র শুটিং করতে তুরস্কে অবস্থান করছেন আমির খান। সিনেমাটি অস্কারজয়ী হলিউড সিনেমা ‘ফরেস্ট গাম্প’ এর রিমেক। সিনেমাটির বেশ কিছু শুটিং নিগদে, আদানা ও ইস্তাম্বুলসহ তুরস্কের বেশ কয়েকটি রাজ্যে ধারণ করা হবে।

এ খবরে বেজায় খুশি এমিনি এরদোগান। আমির খানের সঙ্গে সাক্ষাতের পরই এমিনি এরদোগান তিনটি ছবি টুইট করে লেখেন- “বিশ্ব বিখ্যাত ভারতীয় অভিনেতা, পরিচালক ও প্রযোজক আমির খানের সঙ্গে দেখা করে আমি আপ্লুত। জেনে খুব খুশি হলাম যে, তার নতুন ছবি ‘লাল সিং চাড্ডা’র বাকি অংশের শুটিং তুরস্কের বিভিন্ন প্রান্তে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।”

রোববার তুরস্কের বার্তা সংস্থা আনাদোলু জানিয়েছে, করোনার কারণে আমির খানের শুটিং আপাতত বন্ধ আছে। তাই শনিবার ইস্তাম্বুলে প্রেসিডেন্ট প্রাসাদ হুবের ম্যানসনে আমির খানকে অভ্যর্থনা জানান তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগানপত্নী এমিনি এরদোগান।

ইউএইস/









Leave a reply