করোনায় মৃত্যু, ইউএনও’র হস্তক্ষেপে ৮ ঘণ্টা পর দাফন

|

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:

ঠাকুরগাঁওয়ে করোনায় খয়রুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তির মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়লে
সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ-আল-মামুনের হস্তক্ষেপে আট ঘণ্টা পর মৃতব্যক্তির দাফন কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে।

ওই ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত হয়ে দিনাজপুর এম আব্দুর রহমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। আজ মঙ্গলবার সকালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

মৃতের স্বজন ও এলাকাবাসীরা জানান, মৃত খয়রুল ইসলাম সত্যপীর (রা:) জামে মসজিদের সভাপতি ছিলেন। সোমবার করোনা পজেটিভ আসায় তাকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহমান মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার তিনি মৃত্যুবরণ করেন। পরে তার মৃতদেহ এলাকায় নিয়ে আসলে মানুষের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়।

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আব্দুল্লাহ আল মামুন জানান, এ ঘটনায় এলাকার মানুষের মাঝে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। তবে এ বিষয়ে ভয়ের কিছু নেই, কারণ করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতব্যক্তির যেভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে দাফন ও সৎকার করা হয় সেভাবেই এই মৃতব্যক্তির দাফন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, মৃতব্যক্তির দুই সন্তান করোনা আক্রান্ত হতে পারে এমন উপসর্গ দেওয়ায় তাদেরকে ইতোমধ্যে আইসোলেশনে নেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া যারা মৃতব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছিলেন তাদের তালিকা তৈরি ও নমুনা সংগ্রহ করার জন্য স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলরকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সিভিল সার্জনের তথ্যমতে, ঠাকুরগাঁওয়ে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৫৪৫ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়েছে ২৮৭ জন এবং মোট মৃত্যু হয়েছে ৯ জনের।

ইউএইস/









Leave a reply