ছেলের অনলাইন ক্লাশের জন্য গরু বেচে স্মার্টফোন কিনলেন বাবা

|

সন্তানদের বাবা তিনি। দায়িত্ব অনেক। যেভাবেই হোক দায়িত্ব পালন করতে হবে! শেষ সম্বল বলতে ঘরে ছিল পোষা গরু। তাই ছেলের অনলাইন ক্লাশের জন্য নিজের শেষ সম্বল বিক্রি করে স্মার্টফোন কিনে দিলেন এক বাবা। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের হিমাচল প্রদেশের জ্বালামুখীর গুমার গ্রামে। এছাড়া তার কাছে বিক্রি করার মতো আর কিছুই ছিল না।

কুলদীপ কুমার নামে ওই ব্যক্তি জানান, তার আর কোনো উপায় ছিল না। তিনি সন্তানদের পড়াশোনা শেখাতে চেয়েছিলেন। মাত্র একটা স্মার্টফোনের জন্য তিনি তাদের পড়াশোনা মাঝপথে বন্ধ করতে রাজি হননি। তাই নিজের শেষ সম্বলটুকু বিক্রি করে সন্তানদের স্মার্টফোন কিনে দেন।

তবে জ্বালামুখীর বিধায়ক রমেশ ধাওয়ালা সংবাদমাধ্যমের থেকে কুলদীপের দুরাবস্থা জানার পর এগিয়ে এসেছেন। আর্থিক সাহায্য করার জন্য বিডিও এবং এসডিএমকে নির্দেশ দিয়েছেন।

ভারতের স্থানীয় সংবাদামাধ্যম জানায়, জ্বালামুখীর গুমার গ্রামের কুলদীপ কুমারের বসবাস। সম্বল বলতে ছিল ওই গরুটাই। দুধ বিক্রি করেই হতো রোজগার। কিন্তু তার থেকেও জরুরি সন্তানদের লেখাপড়া। আর অনলাইন লেখাপড়ার জন্য দরকার একটা স্মার্টফোন। অনেক চেষ্টা করেও সেই টাকাটা জোগাড় করা যায়নি। তাই দুই সন্তান অন্নু আর দীপ্পুর লেখাপড়া চালিয়ে যেতে ছয় হাজার রুপিতে বিক্রি করে দিলেন গরু।

কুলদীপের দুই সন্তানের মধ্যে অন্নু পড়ে চতুর্থ শ্রেণিতে আর দিপ্পু দ্বিতীয় শ্রেণিতে। স্কুল থেকে বারবার স্মার্টফোন কিনতে বলা হয়। কুলদীপ জানিয়েছিলেন, স্মার্টফোন কেনার মতো অর্থ নেই তার কাছে। ৫০০ রুপিও নেই। কিন্তু অনলাইন ক্লাস করার জন্য ফোন ছাড়া উপায়ও তো নেই। টাকা জোগাড়ের চেষ্টাও কম করেননি কুলদীপ। কিন্তু কেউই সাহায্য করেনি। ঋণের আবেদন করেও লাভ হয়নি। তাই শেষ পর্যন্ত একমাত্র সম্বল গরু বিক্রি করেই জোগাড় করেছেন স্মার্টফোন কেনার অর্থ।









Leave a reply