ইসরায়েলকে আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি সৌদির, বন্ধ কাতারের জন্য

|

ইসরায়েলমূখী বিমান চলাচলের জন্য আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে সৌদি আরব। গত মাসে ইসরায়েলের বিমান সংস্থা ইওয়ান এওয়ানের সঙ্গে একটি চুক্তি করে এয়ার ইন্ডিয়া। চুক্তিটি দিল্লি থেকে ইসরায়েলের রাজধানী তেলআবিব শহরের মধ্যে সরাসরি বিমান চলাচলের জন্য করা হয়েছে।

কিন্তু দেশ দু’টির মধ্যে সরাসরি বিমান যোগাযোগের জন্য সৌদি আকাশসীমা ব্যবহার করতে হবে। সেজন্য সৌদি সরকারের অনুমোদনের অপেক্ষায় ছিলেন দিল্লি ও তেলআবিব।

ইসরায়েলের সংবাদমাধ্যম হারেৎজ গত বুধবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, সৌদি কর্তৃপক্ষ চুক্তি অনুযায়ী ইসরায়েলেমূখী বিমানের জন্য নিজেদের আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমোদন দিয়েছে। আগামী মার্চ থেকেই সৌদি আরবের উপর দিয়ে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান যাবে ইসরায়েলে। এতে মাত্র আড়াই ঘণ্টায় পৌঁছানো সম্ভব হবে গন্তব্যে।

এদিকে ২০১৭ সালের ৫ জুন সৌদি আরব ও তার মিত্ররা প্রতিবেশি আরব দেশ কাতারের ওপর অবরোধ আরোপ করে। একই সাথে কাতারের কোনো বিমান সৌদি আরবের ওপর দিয়ে ওড়ার ক্ষেত্রেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। তবে স্থল, জল ও আকাশ পথে আরোপ করা অবরোধ শেষ পর্যন্ত কিছুটা শিথিল করা হয়।

গত বছরের আগস্টে সৌদি মিত্র সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন কাতারের বিমান সংস্থাগুলোকে নিজেদের আকাশসীমা ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করেছে। কিন্তু নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে এখনও কাতারি বা কাতারমূখী কোনো বিমানকে নিজেদের আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি দেয়নি সৌদি আরব।

রিয়াদে সিংহাসনে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান বসার পর সৌদি আরবে কথিত সামাজিক ও অর্থনৈতিক সংস্কার অভিযান চলছে। কয়েক যুগ পর ইসরায়েলকে আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি দেয়ার মধ্য দিয়ে এমনই ইঙ্গিত দেখছেন বিশ্লেষকরা।

এক সময় মার্কিন প্রেসিডেন্টরাও ইসরায়েল যাওয়ার জন্য সৌদি আকাশসীমা ব্যবহারের অনুমতি পাননি।

 





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply