মাস্ক না পরা নিয়ে সংঘর্ষ, প্রাণ গেল তরুণীর

|

করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত ভারতে চাঞ্চল্যকর ঘটনা থেমে নেই। প্রতিদিনই আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়লেও সেদিকে তোয়াক্কা না করে আবারও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এবার মাস্ক না পরা নিয়ে অন্ধ্রপ্রদেশে দু’পক্ষে সংঘর্ষের সময় এক তরুণীর মৃত্যু হয়েছে। জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এই সময়।

গত ৩ জুলাই রাজ্যের গুন্টুর জেলায় এই ঘটনা ঘটলেও বিষয়টি সম্প্রতি প্রকাশ্যে আসে। সংঘর্ষের সময় বাবাকে বাঁচাতে গিয়ে লাঠির আঘাতে গুরুতর আহত হয় ফাতিমা। এক সপ্তাহ চিকিৎসাধীন থাকার পর শনিবার ভোরে তার মৃত্যু হয়।

পুলিশের বরাতে ভারতীয় ওই সংবাদমাধ্যম জানায়, ব্যক্তিগত কাজে ক্রান্তি ইয়ালামান্ডালা পাশের গ্রামে গিয়েছিলেন। তখন তার মুখে মাস্ক ছিল না। ওই সময় একদল যুবক এই নিয়ে প্রশ্ন করতেই দু’পক্ষের তর্ক হয়। ঘটনার এখানেই শেষ নয়।

এরপর ৩ জুলাই সেই যুবকদেরই মাস্ক ছাড়া দেখতে পান ক্রান্তির এক আত্মীয়। ওই ক্ষোভ জিইয়ে রেখে এবার ক্রান্তি তাদের ওপর চড়াও হন। কথা কাটাকাটি থেকে মুহূর্তেই হাতাহাতি শুরু হয়। প্রকাশ্যেই মারামারিতে জড়ায় দু’পক্ষ।

বাবাকে বাঁচাতে তখনই ছুটে আসেন ক্রান্তির মেয়ে ফাতিমা। ক্রান্তিকে লাঠি দিয়ে মারতে এলে রুখে দাঁড়ান তার মেয়ে। তখন ওই যুবকরা লাঠি দিয়ে ফাতিমার মাথার আঘাত করেন।

পরে তাকে গুন্টুরের জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। টানা এক সপ্তাহ চিকিৎসাধীন থাকার পর শনিবার ভোরে ফাতিমার মৃত্যু হয়। এরপরেই ক্রান্তির অভিযোগের ভিত্তিতে চার যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply