পদ্মায় নৌকাডুবি: তিনজনের মরদেহ উদ্ধার

|

পাবনা প্রতিনিধি:

পাবনা-কুষ্টিয়া সীমান্তে পদ্মা নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় ৩ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ বুধবার তৃতীয়দিনের মতো চলে উদ্ধার অভিযান।

রাজশাহী থেকে আসা ডুবুরী ও পাবনা দমকল বাহিনীর সদস্যরা সকাল নয়টা থেকে উদ্ধার তৎপরতা চালায়। অভিযানে নিখোঁজ ৩ জনের মরদেহ উদ্ধার করে অভিযানিক দল।

দুপুর পৌণে একটার দিকে ঘটনাস্থল থেকে প্রায় দুই কিলোমিটার ভাটিতে শিলাইদহ ঘাট এলাকা থেকে ভাসমান অবস্থায় কৃষক শরিফুল ইসলামের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহত শরিফুল কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার জামালপুর গ্রামের জলিল মিস্ত্রির ছেলে।

বেলা তিনটায় উদ্ধার করা হয় একই গ্রামের জুবায়ের হোসেন ও বিকাল ছয়টায় জাকির হোসেনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। জুবায়ের ও জাকিরের মরদেহ উদ্ধার করা হয় দুর্ঘটনার জায়গা থেকে চারশো গজ দুরে। মরদেহ পাবার পর কান্নায় ভেঙে পড়েন স্বজনরা।

এদিকে, এখনও নিখোঁজ রয়েছে একজন কৃষক। তাকে উদ্ধারে অভিযান চলবে আগামীকাল। নিখোঁজদের স্বজনরা নদীপাড়ে অধীর অপেক্ষায় ছিলো মরদেহ পাবার আশায়।

পাবনা ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারি পরিচালক সাইফুজ্জামান বলেন, আমাদের চেষ্টার ত্রুটি নেই। নদীর বিভিন্ন স্থানে ঘুরে ঘুরে উদ্ধার তৎপরতা চালাচ্ছি। তবে প্রবল স্রোতের কারণে উদ্ধার অভিযান ব্যাহত হয়েছে অনেক। বেশ কষ্ট করে তিনজনের মরদেহ পেয়েছি। এখনও একজন নিখোঁজ রয়েছে। আগামীকাল অভিয়ান চলবে বলে জানান তিনি।

মঙ্গলবার (০৭ জুলাই) সকাল নয়টার দিকে পদ্মার চরে ঘাস কাটতে যাবার সময় কুষ্টিয়ার কুমারখালি উপজেলার চর ঘোষপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এলাকায় দু’টি নৌকা ডুবির ঘটনা ঘটে। ১৩ জনের মধ্যে ৯ জন সাঁতরে পাড়ে উঠলেও নিখোঁজ হয় চারজন।









Leave a reply