নারী লাঞ্ছনার ঘটনায় ৪ জন চিহ্নিত: পুলিশ

|

রাজধানীর সড়কে নারী লাঞ্ছনার ঘটনাকে অনাকাঙ্খিত বলে অভিহিত করেছেন পুলিশ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। আজ সন্ধ্যায় যমুনা টেলিভিশনকে পুলিশের এডিসি ( প্রটেকশন এন্ড প্রটকল) সিরাজ আমিন জানিয়েছেন, এ ঘটনায় চারজনকে চিহ্নিত করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

চিহ্নিত চার পুলিশ সদস্য হলেন- প্রটেকশন টিমের ইন্সপেক্টর হাসমত, নায়েক এনামুল, কনস্টেবল আনোয়ার এবং ট্রাফিকের কনস্টেবল রেজানুর।

ফেসবুকে আজ বুধবার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। হাজারো মানুষ ভিডিওটি শেয়ার করে তাদের ক্ষোভ জানান। তবে ভিডিওটি যিনি ধারণ করেছেন বা পোস্ট করেছেন তার পরিচয় পাওয়া যায়নি।

৩০ সেকেন্ডের এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, বঙ্গভবনের সামনের সড়কে এক পথচারী তরুণীকে রাস্তায় ফেলে দুজন পুলিশ সদস্য মারধর করছেন। সে সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন ট্রাফিক পুলিশের একজন সদস্য।

ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, মেয়েটির হাতে একটি ব্যাগ। ভেতরে কিছু জামাকাপড় রয়েছে। পুলিশ সদস্যদের মারধরের সময় ব্যাগটি তার হাত থেকে ছিটকে পড়েছে। একজন পুলিশ তরুণীটিকে সজোরে চড় মারছেন। অন্য পুলিশ সদস্য মারতে সহায়তা করছেন তাকে।

দৃশ্যটি আরেক পথচারী ভিডিও করছিলেন। মেরে মেয়েটিকে সড়কের ওপর থেকে সরিয়ে দেয়ার পর এক পুলিশ সদস্য এগিয়ে যান ভিডিও ধারণকারীর দিকে। জিজ্ঞেস করেন, ‘এই মিয়া, এই কী করছেন?’ উত্তরে ওই ব্যক্তি বলেন, ‘আপনার মারতেছেন, আমি ভিডিও করতেছি।’

তখন পুলিশের ওই সদস্য ভিডিও ধারণকারীকে বলেন, ‘পাগল নাকি?’

ঢাকা মহানগর পুলিশের কর্মকর্তারা বলছেন, আজ সকালের ওই সময়ে একজন গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির যাতায়াতের জন্য সাধারণের চলাচলে কড়াকড়ি ছিল। অনেককে তল্লাশি করা হচ্ছিল। তরুণীটির সাথে থাকা ব্যাগ পরীক্ষা করছিলেন পুলিশ সদস্যরা।

 









Leave a reply