চাটমোহরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে মাদরাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ, যুবক গ্রেফতার

|

পাবনা প্রতিনিধি:

পাবনার চাটমোহরে মাদরাসা ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণ এবং অশ্লীল ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

আটককৃত যুবক উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের চড়ইকোল গ্রামের রবিউল করিম মোল্লার ছেলে রনি মোল্লা (১৯)। থানায় তার বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি আইন এবং নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ আইনে মামলা দায়ের হয়েছে।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার হরিপুর ইউনিয়নের রামপুর গ্রামের বাচ্চু সরকারের মেয়ের সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন রনি মোল্লা। বিগত এক বছর যাবত প্রেম চলাকালে রনি বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিউটির সাথে একাধিকবার দৈহিক সম্পর্ক স্থাপন করে।

গত ২০ জুন ওই ছাত্রীর বাড়িতে গিয়ে রনি পুনরায় বিয়ের কথা বলে ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে বিয়ের জন্য চাপ দিলে রনি ২৫ জুন ওই মাদরাসা ছাত্রীর অশালীন ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়। এ ঘটনার পর স্থানীয়ভাবে বিষয়টির মীমাংসার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু রনি বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানায়।

এ ব্যাপারে সোমবার (২৯ জুন) রাতে ওই ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে চাটমোহর থানায় ২০১২ সালের পর্নোগ্রাফি আইন এবং নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ১৫/২০২০।

চাটমোহর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আমিনুল ইসলাম জানান, ‘অভিযোগ পাওয়ার পর পর্নোগ্রাফি এবং নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ আইনে মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত রনিকে আটক করা হয়েছে এবং ওই ছাত্রীর জবানবন্দি গ্রহণ করা হয়েছে।’

ইউএইস/









Leave a reply