অনুমতি ছাড়া নারীকে স্পর্শ করা যাবে না: দিল্লি আদালত

|

এটা দুর্ভাগ্যজনক যে নারীরা প্রতিনিয়ত লম্পট ও যৌন-বিকৃত স্বভাবের পুরুষদের দ্বারা আক্রান্ত হচ্ছেন। নারীর শরীর তার নিজের, অনুমতি ছাড়া কেউই তাকে স্পর্শ করতে পারবে না।

এক যৌন নিপীড়ন মামলায় রায় প্রদানকালে দিল্লির একটি আদালত এ পর্যবেক্ষণের কথা উল্লেখ করে। ওই মামলায় নয় বছর বয়ষী এক কন্যা শিশুকে যৌন নিপীড়ন করায় দোষী সাব্যস্ত হওয়া চাবি রামকে আদালত পাঁচ বছরের কারাদণ্ড ও ১০ হাজার রুপি জরিমানা করে।

ওই অর্থ দণ্ড থেকে পাঁচ হাজার রুপি এবং দিল্লি স্টেট লিগ্যাল সার্ভিস অথরিটিকে ৫০ হাজার রুপি ওই শিশুটিকে প্রদানের নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

দায়েরকৃত অভিযোগ অনুসারে, ২০১৪ সালে দিল্লির মুখার্জি নগরের বাজারে মায়ের সাথে গিয়েছিল শিশুটি। ভীড়ের মধ্যে ওই শিশুকে যৌন নিপীড়ন করে উত্তর প্রদেশের বাসিন্দা রাম।

আদালত বলেছে, “ভারতের মতো স্বাধীন, দ্রুত প্রগতিশীল ও প্রযুক্তি-সক্ষম দেশে নারীদের এ ধরনে অবস্থা খুবই দুর্ভাগ্যজনক। লম্পট ও যৌন বিকৃত পুরুষদের হাত থেকে প্রাপ্তবয়স্ক কিংবা শিশু কেউই বাদ যাচ্ছে না। বাজার, গণপরিবহন, মেট্রো, সিনেমা হল ও থিয়েটারের মতো ভীড়ের জায়গাগুলোতে নারীরা প্রতিনিয়ত তাদের বিকৃত মানসিকতার শিকার হচ্ছে।”

নারীদের শরীর তাদের নিজের, যে কারণেই হোক না কেন; নারীর অনুমতি ছাড়া তাকে স্পর্শ করা যাবে না বলে আদালত তার পর্যবেক্ষণে উল্লেখ করেছে।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply