১৩ সন্তান শেকলবন্দী; দম্পতি গ্রেফতার

|

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ায় একটি বাড়িতে অভিযান চালিয়ে শেকলবন্দী ১২ ভাইবোনকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয়েছে তাদের বাবা-মাকে। ঘটনা লস অ্যাঞ্জেলেস থেকে প্রায় একশ কিলোমিটার দুরে পেরিস শহরের।
পুলিশ জানায়, বাসাটি ছিল নোংরা। সন্তানগুলি অপুষ্টির শিকার, তাদের কাউকে বিছানার সাথে, কাউকে সিড়ির সাথে বেধে রাখা হয়েছে। এদের বয়স ২ থেকে ২৯ বছরের মধ্যে।
১৩ সন্তানে একজন, ১৭ বছর বয়সী মেয়ে সোমবার কৌশলে বাসা থেকে পালিয়ে যায়। ফোন করে পুলিশের সাথে যোগাযোগ করে। পুলিশ জানায়, মেয়েটি এতোটাই অপুষ্টিতে ভুগছিলো যে তাকে শুরুতে ১০ বছরের শিশু মনে করেছিলো তারা।
এ ঘটনায় রীতিমতো বিস্মিত প্রতিবেশী ও স্থানীয়রা। প্রতিবেশিরা জানিয়েছে, ডেভিড ও লুইস টার্পিন একরকম সমাজ-বিচ্ছিন্ন ছিল। সচরাচর ঘর থেকেই বের হতেন না। এক প্রতিবেশি জানান, সন্তানগুলোর হাবভাব দেখে তারও মনে হয়েছে তারা খুব একটা বাইরের মানুষের সংস্পর্শে আসেনি। টার্পিন দম্পতির ফেসবুক পেজে অবশ্য বিয়ের অনুষ্ঠানে সুসজ্জিত অবস্থায় দেখা গেছে তাদের।
এই দম্পতিকে নির্যাতন ও শিশু বিপন্নরোধী আইনে অভিযুক্ত করা হয়েছে। তাদের প্রত্যেকের জামিন ধরা হয়েছে ৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। তবে কী কারণে তারা সন্তানদের এভাবে শেকলে বেঁধে রেখেছিলো, তা এখনও প্রকাশ পায়নি।









Leave a reply