ভৈরবে ৮১ কেজি গাঁজাসহ ৭ মাদক ব্যবসায়ী আটক

|

ভৈরব প্রতিনিধি:

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ৮১ কেজি গাঁজা ২টি পিকআপ, ১টি প্রাইভেট কারসহ একজন ভূয়া মানবধিকার কর্মী এবং ৬ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে র‍্যাব-১৪ ভৈরব ক্যাম্পের সদস্যরা।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টার মধ্যে শহরের নাটাল মোড় এলাকায় পৃথক অভিযানে তাদেরকে গাড়িসহ আটক করা হয়। এরা হলো ভূয়া মানবধিকার কর্মী হবিগঞ্জের রুদ্র গ্রামের মইনুর রশিদ (৩৫), মাদক ব্যবসায়ী হবিগঞ্জের চুনারুঘাটের জহির আলী (৩৬), গাজীপুর এলাকার পাটুয়া গ্রামের শামিম শেখ (২৪), নরসিংদির সুলতানপুর গ্রামের মোবারক হোসেন (২২), গাজীপুরের শাওরাইট গ্রামের শামীম (২৩), কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ার কোদালী গ্রামের মোঃ আলমগীর (২৩) ও হবিগঞ্জের শায়েস্তাগঞ্জ গ্রামের মোঃ জনি (১৮)।

অভিযানকালে র‍্যাব সদস্যরা আটককৃতদের কাছ থেকে মাদক বিক্রির ২৪ হাজার ৫০০ টাকা উদ্ধার করে। র‍্যাব জানায় উদ্ধারকৃত মাদকসহ আলামতের মূল্য প্রায় ৪১ লাখ ৪৩ হাজার ৬০০ টাকা। এই ঘটনায় পৃথকভাবে ভৈরব থানায় র‍্যাব বাদী হয়ে তিনটি মামলা করেছে।

জানা গেছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ভৈরব র‍্যাব ক্যাম্পের কোম্পানীর অধিনায়ক রাফিউদ্দিন মোহাম্মদ যোবায়ের ও স্কোয়াড কমান্ডার চন্দন দেবনাথ এ অভিযান চালান। আজ বৃহস্পতিবার সকালে পৌর শহরের কাছে মেঘনা নদীর সড়ক সেতু সংলগ্ন নাটাল মোড় এলাকায় একটি চৌকি স্থাপন করে র‍্যাব। এসময় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে চলাচলকারী গাড়ি তল্লাশী করে তিনটি গাড়ি আটক করার পর ফের তল্লাশী চালিয়ে মানবধিকার কর্মী মইনুর রশিদের গাড়ি থেকে ২২ কেজি এবং অপর দুটি গাড়ি থেকে ৫৯ কেজি গাঁজা উদ্ধার করে। ঘটনার সময় তিন গাড়ির মাদক ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে মাদক বিক্রির ২৪৫০০ টাকা উদ্ধার করা হয়। র‍্যাব সদস্যরা মাদক ব্যবসায়ীসহ তিনটি গাড়িও আটক করে।

ক্যাম্পের অধিনায়ক রাফিউদ্দিন মোহাম্মদ যোবায়ের জানান, আটককৃত মইনুল রশিদ দীর্ঘদিন যাবত মানবধিকার কর্মীর ভূয়া স্টিকার গাড়িতে লাগিয়ে মাদক ব্যবসা করছে। জিজ্ঞাসাবাদে সে একথা স্বীকার করেছে। অন্য আটককৃত ৬ জন চিন্হিত মাদক ব্যবসায়ী। তাদের বিরুদ্ধে থানায় আগেও একাধিক মামলা রয়েছে। তিনি বলেন আমাদের কাছে আগে থেকেই খবর ছিল তারা হবিগঞ্জ এলাকা থেকে গাঁজা নিয়ে ঢাকায় যাবে। আটককৃতদের বিরুদ্ধে ভৈরব থানায় পৃথকভাবে তিনটি মামলা করা হয়েছে বলে তিনি জানান।









Leave a reply