আমি জমি মাপা আমিন হয়ে গেছি: শাহনাজ খুশি

|

করোনার কারণে অনেকেই ঘরে বন্দি। তেমনি বন্দি অভিনেতা-অভিনেত্রীরাও। এই সুযোগে পরিবারে বেশি সময় দিচ্ছেন ব্যস্ত থাকা এই মানুষগুলো। এই সময় দিতে গিয়ে অনেকে পড়েন মধুর বিড়ম্বনায়। তেমনটা জানালেন অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি। ছেলেদের জন্য রান্না করতে গিয়ে কেমন বিপাকে পড়েন সেটাই শেয়ার ফেসবুকে তার অফিসিয়াল আইডিতে । পাঠকের জন্য তুলে ধরা হলো–

মুরগীর টুকরার সাইজ,আর জোড়া মেলাতে মেলাতে আমি ক্লান্ত।একটা টুকরা ছোট যদি হয় কারো থালায়,তাহলেই সে আমার পর ছেলে,যারটা বড় সে আমার নিজের ছেলে!! ওফফ!! সবারই কি তাই??
আমি একটা ব্যর্থ মা,এত ভাল সবজী রান্না করি আমি,কিন্তু আমার পুত্রদ্বয় মুরগী আর আলু,ছাড়া কিছু খাই না! রোজ রান/থান/পাখনা/সব কিছুর জোড়া মিলাতে মিলাতে আমি জমি মাপা আমিন হয়ে গেছি! ঝোলেরও সমান ভাগ করতে হয়!!! হায় রে ছেলেরা,দুই ভাই বেঁচে থাকলে,কে কোথায় থাকবে! কি খাবে! অথচ এখন আমাকে প্রতিদিন,আলু/মুরগীর টুকরার সাইজ মেলাতে তটস্থ রাখে! কমবেশী হলেই পরের মা হয়ে যায়…………









Leave a reply