রংপুরে গাছ কাটা নিয়ে সংঘর্ষে গৃহবধু নিহত

|

স্টাফ করেসপেন্ডন্ট:

রংপুরের মিঠাপুকুরের ময়েনপুর পুর্বপাড়া গ্রামে গাছ কাটা নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে পিয়ারী বেগম নামের এক গৃহবধু মারা গেছেন। সোমবার রাতে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

মিঠাপাকুর থানার ওসি জাফর আলী বিশ্বাস জানান, পুর্ব থেকে একটি ওছিয়ত নামার জমি নিয়ে ওই এলাকার সিরাজুল ইসলামের সাথে আনোয়ারুল ইসলামের পরিবারের মধ্যে বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে থানায় একাধিক মামলা মোকদ্দমাও আছে।

শনিবার সিরাজুল ইসলামের বসতভিটার একটি গাছ জোর পূর্বক কাটতে যায় আনোয়ারুল, তার পুত্র সাগর ও স্ত্রী শাহিনুরসহ বেশ কয়েকজন। এতে বাঁধা দেয় সিরাজুল ও তার স্ত্রী পিয়ারী বেগমসহ অন্যান্যরা। এসময় আনোয়ারুল ও তার লোকজন পিয়ারী বেগমের মাথায় ঘরের খুটি দিয়ে আঘাত করে। গুরুতর অবস্থায় তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সোমবার রাতে তিনি মারা যান।

লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসাপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। পুলিশ ঘটনাস্থলে তদন্ত করার জন্য গেছে বলেও জানান ওসি।

এ ঘটনায় হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবি করেছে নিহতের স্বজনরা। নিহতের স্বামী সিরাজুল ইসলাম জানান, আমার বতসভিটার গাছ ওরা কাটতে এসে আমার স্ত্রীকে নির্মম ভাবে হত্যা করলো। আমি হত্যাকারীদের ফাঁসি চাই।

মিঠাপুকুর থানার ওসি (তদন্ত) হাবিবুর রহমান জানান, খবর পাওয়ার পরই আমরা ঘটনাস্থলে এসে বিষয়টি তদন্ত করছি। একটি হত্যা মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply