করোনা চিকিৎসায় দুটি ওষুধ প্রয়োগে সাফল্য পেয়েছেন বাংলাদেশের চিকিৎসক

|

করোনাভাইরাসের চিকিৎসায় রোগীদের উপর দুটি ওষুধ প্রয়োগে সাফল্য পেয়েছেন বাংলাদেশের চিকিৎসক ডা. তারেক আলম। বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডা. তারেক আলম যমুনা নিউজকে জানান, করোনা পজেটিভ হওয়া ৬০ জন রোগীকে গত কয়েক সপ্তাহে চিকিৎসা দিয়েছেন। এতে ভালো ফল এসেছে। তবে ওষুধগুলো নিয়ে তারা কোনো ধরনের গবেষণা করেননি বলে জানিয়েছেন।

তিনি জানান, করোনা চিকিৎসায় কোনো নির্দিষ্ট ওষুধ নেই, ফলে তারা বিদেশি একটি বিশ্ববিদ্যালয় এবং কিছু প্রতিষ্ঠানের গবেষণার প্রাথমিক ফলাফলকে আমলে নিয়ে অন্য রোগের জন্য তৈরি দুটি ওষুধের মিশ্রণ রোগীদের ওপর প্রয়োগ করে ভালো ফলাফল পেয়েছেন।

ডা. তারেক বলেন, বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল করোনার জন্য নির্ধারিত হাসপাতাল নয়। ফলে এখানে করোনার রোগীরা সাধারণত আসেন না। এরপরেও নিউমোনিয়া ও জ্বরসহ যেসব রোগী ভর্তি হয়েছে তাদের সবার করোনা পরীক্ষা করে পজেটিভ পাওয়ায় চিকিৎসা দিয়েছি। এরকম ৬০ জন রোগীকে চিকিৎসা দেয়ার সময় দুটি ওষুধের মিশ্রণ ব্যবহার করা হয়েছে। দু’একদিনের মধ্যেই অবস্থার উন্নতি হতে থাকে। এবং কারো কারো শরীরে করোনা নেগেটিভ দেখা যায়। বর্তমানে তারা প্রায় পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেছেন। এসব রোগীদের ওপর অ্যান্টিপ্রোটোজোয়াল মেডিসিন ইভারমেকটিনের সিঙ্গল ডোজ এর সাথে অ্যান্টিবায়োটিক ডক্সিসাইক্লিন মিশিয়ে প্রয়োগ করা হয়েছে। তবে খুব জটিল রোগী তারা পাননি বলে জানান ডা. তারেক।

মূলত, অস্ট্রেলিয়ার মোনাশ ইউনির্ভাসিটির একটি গবেষণায় ল্যাব টেস্টের ফলাফলে উৎসাহিত হয়ে তিনি পরীক্ষামূলকভাবে এ ওষুধ দুটি প্রয়োগ করেন। তবে, এ ওষুধ দুটি নিয়ে দেশে এখনো আনুষ্ঠানিক কোনো গবেষণা হয়নি। কিছু গণমাধ্যমে এটি ‘গবেষণায় সাফল্য’ বলে উল্লেখ করায় বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছিল।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply