বেতন-ভাতা পরিশোধের দাবিতে উত্তাল টঙ্গী

|

গাজীপুর প্রতিনিধি:

শতভাগ বেতন, বকেয়া বেতন, ঈদ বোনাস এবং করোনা ভাইরাসের হাত থেকে সুরক্ষার দাবিতে বিক্ষোভে উত্তাল টঙ্গীর শিল্পাঞ্চল এলাকা। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে ৩টা পর্যন্ত বেশ কয়েকটি নামী-দামী পোশাক কারখানার হাজার হাজার শ্রমিক বিক্ষুদ্ধ হয়ে রাস্তায় নেমে আসে। এসময় তারা ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়ক এবং টঙ্গী- কালীগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে কারখানা ভাংচুর এবং যানবাহনে অগ্নি-সংযোগ করে।

একপর্যায়ে শ্রমিক ও পুলিশের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইঠ-পাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। অবস্থা বেগতিক দেখে শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ লাঠিচার্জ করলে প্রায় অর্ধশতাধিক শ্রমিক আহত হয়।

এদিকে ঢাকা-ময়সনসিংহ মহাসড়ক অবরোধের ফলে উভয় দিকে পণ্যবাহী ও ব্যক্তিগত যানবাহনের তীব্র জটের সৃষ্টি হয়।

পুলিশ জানায়, সকাল ৮টা থেকে টঙ্গী শিল্পনগরীর বিসিক এলাকার বেশ কয়েকটি পোশাক কারখানায় শ্রমিকদের মার্চ ও এপ্রিল মাসের বেতন ভাতা পরিশোধ না করায় শ্রমিকরা প্রথমে বিসিক এলাকায় আঞ্চলিক সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। পরে আরো কয়েকটি পোশাক কারখানার শ্রমিক একত্র হয়। একপর্যায়ে বেশ কয়েকটি গার্মেন্টেসে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুরসহ উত্তেজিত শ্রমিকরা হামিম গ্রুপের একটি কাভার্ডভ্যানে অগ্নি সংযোগ করে। শ্রমিকরা হামীম গ্রুপের গার্মেন্টে গিয়ে হামলা ও ভাংচুরের পরেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনের বাইরে চলে যায়।

শ্রমিকরা জানান, ঈদ বোনাস, শতভাগ বেতন পরিশোধ এবং গার্মেন্টসে চাকুরিরত অবস্থায় করোনা ভাইরাসের হাত থেকে শতভাগ সুরক্ষা ও জীবনের নিরাপত্তার দাবিতে তারা বিক্ষোভ করছেন। কিন্তু বেতন-বোনাস দিতে রাজি না হওয়ায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ এবং শ্রমিকরা কয়েক দফায় কারখানা কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করার পরও শ্রমিকদের বেতন ভাতার কোনো সমাধান হচ্ছে না।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply