লক্ষণহীন আক্রান্তদের জিনভিত্তিক পরীক্ষার প্রয়োজন: ঢাবি করোনা টিম

|

করোনার জিনোম সিকোয়েন্সিং-এর পাশাপাশি, লক্ষণহীন করোনা আক্রান্ত মানুষদের প্রতিক্রিয়া নিরিখে তাদের জিন ভিত্তিক পরীক্ষার প্রয়োজন বলে জানায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় করোনা রেসপন্স টেকনিক্যাল টিম।

আজ সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জিনোম সিকোয়েন্সিং ও মানবদেহে করোনাভাইরাসের ভিন্ন ভিন্ন প্রতিক্রিয়ার ম্যাপিং নিয়ে তাদের কাজের উপর ব্রিফ করেছে। তারা জানায়, করোনাভাইরাসের ১০০টি নমুনার জিনোম সিকোয়েন্সিং প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে।

তারা জানান, প্রক্রিয়াটি ব্যয়বহুল। প্রচুর ফান্ড প্রয়োজন। প্রকল্পের আনুমানিক ব্যয় হবে ১ কোটি টাকা। বিভিন্ন দেশের জনগোষ্ঠির জন্য তৈরি মডেল আমাদের জনগোষ্ঠির শরীরে কার্যকর নাও হতে পারে। ফলে ভাইরাসটি নির্মূল নাও হতে পারে। এজন্য এদেশের জনগোষ্ঠির জিনোম সিকোয়েন্সিং এর ভিত্তিতেই ভ্যাকসিন তৈরি করতে হবে। এছাড়া মানুষের উদাসীনতা নিয়ে তারা শঙ্কিত।

এসময় বক্তারা আরও বলেন, এদেশের বিজ্ঞান চর্চা আমলাতান্ত্রিক বেড়াজালে আবদ্ধ হয়ে পড়েছে। এর বাইরে এসে বিজ্ঞান চর্চাকে উন্মুক্ত করতে হবে।









Leave a reply