বাবার মরদেহ রেখে পালাল সন্তানরা!

|

ছবি: পার্কভিউ হাসপাতাল

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:

হুইল চেয়ারে করে বাবাকে নিয়ে এসেছিলেন হাসপাতালে। কিন্তু বাবা মৃত জানার পর মরদেহ রেখেই হুইল চেয়ারটি নিয়ে পালিয়ে গেলেন সন্তানরা। চলমান করোনা দুর্যোগে এ ধরণের করুণ ঘটনা ঘটেছে চট্টগ্রামে। বুধবার বেলা আড়াইটার দিকে নগরীর পাঁচলাইশ কাতালগঞ্জে বেসরকারি পার্কভিউ হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।

পুরো ঘটনাটির বর্ণনা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তুলে ধরেন হাসপাতালের হেড অব এক্সিডেন্ট এন্ড ইমার্জেন্সি ডাক্তার এনামুল কবির তানভির।

তিনি লিখেছেন, ‘হঠাৎ একজন এসে বললো, স্যার আমার বাবার অবস্থা খুব খারাপ। আমি বললাম, এখনি নিয়ে আসুন। আসার সঙ্গে সঙ্গে ডা. রিয়াদ মুনতাসির ( Emergency Medical Officer) ও নার্সরা রোগীর ভাইটাল দেখছিল আর ইতিহাস নিচ্ছিল। আমি অন্য আরেকটি রোগীকে দেখে আসার পর দেখলাম ঐ রোগীটা ‘মৃত’। ইতিহাস অনুযায়ী, রোগীটি বাসায় অবস্থানকালেই মারা যায়। তারপর, ব্যাপারটা রোগীর সঙ্গে আসা লোকদের জানালাম। এবং তাদের জানালাম ECG করে কনফার্ম করে দিচ্ছি। এরপর আপনারা নিয়ে যেতে পারবেন।

ECG করতে হয়তো সর্বোচ্চ ৩ মিনিট লাগল। এর মধ্যেই রোগীর সাথে আসা সন্তান ও আত্মীয়রা পালিয়েছে। পালানোর সময় রোগীর সাথে নিয়ে আসা হুইল চেয়ারটাও নিয়ে গেলো। কিন্তু নিলোনা শুধুমাত্র তাদের বাবাকে..।’

পরে খবর পেয়ে পাঁচলাইশ থানা পুলিশের একটি দল হাসপাতালে যায়। পরবর্তীতে সিসি টিভি ফুটেজ দেখে মৃত ব্যক্তির সাথে থাকা স্বজনদের শনাক্ত করে পুলিশ। এরপর পুলিশ মরদেহটি তার গ্রামের বাড়ি পটিয়ায় পাঠানোর ব্যবস্থা করে।

মারা যাওয়া ব্যক্তির নাম শামসুল আলম। ৬৭ বছর বয়সী এই ব্যক্তি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছেন বলে ধারণা করছেন চিকিৎসকরা।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply