ছাগল না দেয়ায় কর্মকর্তাকে মারধর, আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা ও ছাত্রলীগ নেতা আটক

|

সিলেট নগরীর টিলাগড়ে খাওয়ার জন্য ছাগল না দেওয়ায় জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। মামলায় জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক রনজিত সরকারসহ ১০ জনকে নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাত আরও ৮/১০ জনকে আসামি করা হয়েছে।

সোমবার রাতে সিলেট বিভাগীয় প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ড. আমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে শাহপরান থানায় এ মামলা দায়ের করেন। এ ঘটনায় পুলিশ রাতেই অভিযান চালিয়ে কনক পাল অরূপ নামের এক জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

মামলার এজাহারে বলা হয়, সোমবার দুপুরে নগরের টিলাগড়ে সিলেট বিভাগীয় ছাগল গবেষণা খামারে কয়েকজন যুবককে পাঠান সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট রনজিত সরকার। যুবকরা খামারে প্রজননের জন্য রাখা একটি পাঠা (ছাগল) ফ্রি দেওয়ার জন্য বিভাগীয় প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ড. আমিনুল ইসলামের কাছে আবদার জানায়। ড.আমিনুল পাঠা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তারা গালিগালাজ করে চলে যায়। কিছুক্ষণ পর দলবল নিয়ে রনজিত সরকার সেখানে গিয়ে কর্মকর্তাদের ওপর চড়াও হন। এ সময় তিনি অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে জেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা কাজী আশরাফের উপর হামলা চালান। অফিসের অন্যান্য কর্মকর্তাদেরও লাঞ্ছিত করেন তারা।

শাহপরান থানার ওসি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন,এ ঘটনায় ইতিমধ্যে কনক পাল অরূপ নামে এক ছাত্রলীগ নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্যদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালাচ্ছে পুলিশ।









Leave a reply