করোনায় বাইরে গেলে নিজেকে যেভাবে সুরক্ষিত রাখবেন

|

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সবচেয়ে বেশি কার্যকর হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও ঘন ঘন সাবানপানি দিয়ে ২০ সেকেন্ড সময় নিয়ে হাত ধোয়া।

তবে জরুরি প্রয়োজনে আপনাকে ঘর থেকে বের হতেই হয়। বাইরে বের হলেই সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ে। তবে এখন প্রশ্ন হলো– বাইরে গেলে কীভাবে নিজেকে সুরক্ষিত রাখবেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, মহামারী এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব থেকে বাঁচতে হলে কিছু অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে। এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো– নিয়মিত সাবানপানি দিয়ে হাত ধোয়া, সাবানপানি না থাকলে অ্যালকোহলসমৃদ্ধ হ্যান্ড রাব বা স্যানিটাইজার ব্যবহার করা এবং অন্যদের কাছ থেকে কমপক্ষে এক মিটার বা তিন ফুট দূরত্ব বজায় রাখা।

কেন এসব মানবেন?

হাঁচি, কাশি বা কথা বলার সময় মানুষের নাক বা মুখ থেকে যে ড্রপলেটস বের হয়, এতে ভাইরাস থাকতে পারে। আর আক্রান্ত ব্যক্তির খুব বেশি কাছে গেলে শ্বাস-প্রশ্বাসের সঙ্গে এই ড্রপলেটস ভাইরাস আপনার মধ্যে ঢুকতে পারে। তাই সতর্কতা হিসেবে ভিড় এড়িয়ে চলারও পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

সম্প্রতি বাংলাদেশে লকডাউন শিথিল এবং মার্কেটসহ নানা ধরনের প্রতিষ্ঠান চালু করার কারণে এই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাটাই বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

বাইরে বের হলে কী করবেন?

১। মাস্ক ব্যবহার:

বাইরে বের হলে অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মাস্ক পরার কোনো বিকল্প নেই।

২। হাত ধোয়া:

গন্তব্যে যাওয়ার সময় হাত স্যানিটাইজ করা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা উচিত। এছাড়া হাত না ধুয়ে কোনোভাবেই চোখ, মুখ ও নাক স্পর্শ করা যাবে না।

৩। সাবান দিয়ে গোসল করা:

শুধু কাপড় পরিষ্কার করা বা হাত-মুখ ধুলেই হবে না। সংক্রমণ ঠেকাতে হলে, বাইরে থেকে আসার পর পুরো শরীরে সাবান মেখে গোসল করে নিতে হবে।

৪। পরিহিত পোশাকটি ধুয়ে ফেলা:

বাইরে থেকে ঘরে ফেরার পর পরিহিত পোশাকটি সাবান ও পানি দিয়ে কমপক্ষে আধাঘণ্টা ভিজিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলতে হবে। এ ছাড়া পরিহিত জুতা জোড়াও ঘরের বাইরে রাখুন।

৫। চশমা গ্লাভস ও পিপিইর ব্যবহার:

চোখ দিয়ে করোনাভাইরাসের প্রবেশ ঠেকাতে জিরো পাওয়ার গ্লাস বা চশমা ব্যবহার করুন। এ ছাড়া হাত ও শরীর সুরক্ষিত রাখতে গ্লাভস ও পিপিই পরুন।

সূত্র: বিবিসি বাংলা









Leave a reply