ভারতে বিচারকদের বিদ্রোহের কারণ বিচারকের রহস্যজনক মৃত্যু!

|

গতকাল ভারতের ইতিহাসে প্রথম ও নজিরবিহীন ঘটনার মধ্যে দিয়ে প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করে চার বিচারক। কিন্তু, জ্যেষ্ঠতার বিচারে দ্বিতীয় থেকে পঞ্চম স্থানে থাকা চার বিচারপতি কেনো এরকম করলেন?

নাটের গুরু হিসেবে উঠে আসছে বিজেপির সভাপতি অমিত শাহের নাম। গুজরাটের দাঙ্গায় সোহরাব উদ্দিন হত্যা মামলার অন্যতম অভিযুক্ত অমিত শাহ। ২০১৪ সালে, এই মামলার কার্যক্রম বিচারক লোয়া’র আদালতে স্থানান্তর হওয়ার দুই সপ্তাহের মাথায় তার অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়। এই মৃত্যুর তদন্ত চেয়ে মামলা হয় সুপ্রিম কোর্টে। মামলার শুনানি নিয়েই গতকাল বিদ্রোহ করে চার বিচারপতি।

বিদ্রোহী বিচারপতিদের ভাষ্য অনুযায়ী, বিচারপতি লোয়া’র মৃত্যু মামলা একটি গুরুত্বপূর্ণ মামলা। এই মামলার শুনানি প্রবীণ কোনো বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চকে দেয়া উচিত কিন্তু প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র মামলাটি শুনানির দায়িত্ব দেন বিচারপতি অরুণ মিশ্রের ডিভিশন বেঞ্চকে। যিনি জ্যেষ্ঠতার বিচারে দশম স্থানে। এই ব্যাপারে দীপক মিশ্রের কাছে আপত্তি তোলেন ওই চার বিচারপতি।

আর এই মামলা শুনানি ছিলো গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০ টায়। এর আগেই এই প্রবীণ চার বিচারপতি প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের কাছে যান।  কিন্তু তাদের আবেদনে কান দেননি প্রধান বিচারপতি। তারপরেই সাংবাদিক সম্মেলন করেন তাঁরা।

এদিকে প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র সরাসরি জানিয়ে দেন, তিনি ওই চার বিচারপতির আবেদনে সাড়া দেবেন না, কারণ কোন মামলা কোন বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে যাবে এই ব্যাপারে সিদ্ধান্তে নেওয়ার সম্পূর্ণ ক্ষমতা তাঁকে দেওয়া হয়েছে।

টিবিজেড/টিএফ


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply