করোনা: বিশ্বে প্রতিদিনই নতুন নতুন হটস্পট

|

ছবি: প্রতীকী

উত্তর গোলার্ধ থেকে দক্ষিণ, পূর্ব থেকে পশ্চিম – এভাবে বিশ্বজুড়ে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে করোনাভাইরাস। কখনও এশিয়ায়, কখনও ইউরোপ থেকে আমেরিকা, মহাদেশের পর মহাদেশে তাণ্ডবলীলা চালাচ্ছে প্রাণঘাতী এ ভাইরাস।

কিছুতেই ঠেকানো যাচ্ছে না সংক্রমণ। এক দেশে মৃত্যুর মিছিল শেষ করে ছুটে যাচ্ছে নতুন আরেক দেশে। বিশ্বে প্রতিদিনই তৈরি হচ্ছে নতুন নতুন হটস্পট। বিপজ্জনক এলাকা। করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুতে বিশ্বে এখন নতুন হটস্পট রাশিয়া, ভারত ও ব্রাজিল। এরপর হটস্পট হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে বেলারুশ, কাতার ও সিঙ্গাপুর।

ওয়াল্ডওমিটারের তথ্যানুসারে, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে নতুন করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ৮১ হাজার। মারা গেছেন ১০ হাজারের বেশি মানুষ। এ নিয়ে পৃথিবীতে মোট সংক্রামিতের সংখ্যা ৩৭ লাখ ৮১ হাজারের বেশি।

মৃতের সংখ্যা ২ লাখ ৬১ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। এখনও করোনা হটস্পটের তালিকায় শীর্ষে যুক্তরাষ্ট্র। মঙ্গলবার দেশটিতে নতুন করে ২৫ হাজারের বেশি মানুষ সংক্রমিত হয়ে মোট আক্রান্ত ১২ লাখ ৪৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৪০০ জনের। মোট মৃতের সংখ্যা ৭৩ হাজার ১৪৫ জন।

নিউইয়র্কের পর যুক্তরাষ্ট্রের নতুন হটস্পটে পরিণত হয়েছে ওয়াশিংটন অঞ্চল ও জর্জিয়া। ম্যারিল্যান্ডের গভর্নর ল্যারি হোগান এপ্রিলের প্রথমদিকে আশঙ্কা করেছিলেন, নিউইয়র্কের পরে ওয়াশিংটন মহামারীর অন্যতম কেন্দ্রস্থলে পরিণত হবে। মার্চের শেষ দিক থেকে লকডাউন জারি এবং স্কুল ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখা সত্ত্বেও হাসপাতালে ভর্তি, আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে।

ওয়াশিংটনের উত্তরে মন্টোগোমারি কাউন্টিতে ১০ লাখের মতো লোকের বসবাস। মঙ্গলবার পর্যন্ত সেখানে ৫ হাজার ৫৪১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন এবং ২৯২ জনের মৃত্যু হয়েছে। ওয়াশিংটনের বহু এলাকার শ্রমিক আফ্রিকান-আমেরিকান এবং ল্যাটিন জনগোষ্ঠীর লোক, তাদের সংক্রমণ এবং মৃত্যুর হার শ্বেতাঙ্গদের তুলনায় বেশি। যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়ায় গত ৭ দিনে গড়ে ৪৩ জন করে মানুষ মারা গেছেন। এ নিয়ে রাজ্যটিতে মারা গেছে ১ হাজার ২৯৪ জন। আক্রান্ত হয়েছেন ৩০ হাজারের বেশি মানুষ।

করোনা সংক্রমণের নতুন হটস্পট হয়ে ওঠা রাশিয়ায় গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ১০ হাজার ৫৫৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন। দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৬৫ হাজার ৯২৯ জন। রাশিয়ায় একদিনে সর্বোচ্চ ৯৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এ নিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা ১ হাজার ৫৩৭ জন। জার্মানিকে পেছনে ফেলে করোনা তাণ্ডবে বিধ্বস্ত দেশগুলোর মধ্যে ষষ্ঠ স্থানে উঠে এসেছে রাশিয়া। দেশটিতে সপ্তাহ তিনেক আগেও করোনা সংক্রমণের সংখ্যা ছিল একশ’র নিচে। গত এক সপ্তাহে দেশটিতে প্রতিদিনই প্রায় ১০ হাজারের কাছাকাছি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। এরপরেও দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ­াদিমির পুতিন ধীরে ধীরে লকডাউন তোলার পরিকল্পনা করছেন।

ব্রাজিলে মঙ্গলবার নতুন ৬ হাজার ৪৪৯ জন আক্রান্ত মিলিয়ে মোট সংক্রমণ এক লাখ ১৬ হাজার ২২৯ জনের। গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৭৮ জন নিয়ে মৃতের সংখ্যা ৭ হাজার ৯৫৮ জন। অল্প কয়েক দিনের মধ্যে সংক্রমণের সংখ্যা লাখ ছাড়িয়ে যাওয়া দেশগুলোর অন্যতম ল্যাটিন আমেরিকার বৃহত্তম এ দেশটি।

এ মহাদেশে মারা যাওয়া ১৫ হাজারের অর্ধেকই ব্রাজিলে। ভারতে মঙ্গলবার লকডাউন শিথিল করার দিনই প্রায় ৪ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছিলেন। এ নিয়ে মোট সংক্রমিতের সংখ্যা ৫২ হাজার ৩৪০। মারা গেছেন ১ হাজার ৭৬৮ জন। ভারতে গত ১৫ দিনে হটস্পট জেলার সংখ্যা ১২৬ থেকে বেড়ে ১৭০ হয়েছে। ২৫টি রাজ্যজুড়ে রয়েছে এসব হটস্পট।

আগামীতে নতুন হটস্পট হওয়ার অপেক্ষায় থাকা বেলারুশে মঙ্গলবার নতুন ৯০৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ হাজার ২৫৫ জন ও মারা গেছেন ১১২ জন। টানা ৪ দিন ধরে দেশটিতে আক্রান্তের সংখ্যা গড়ে ৭০০-র উপর।

এছাড়া কাতারে ২৪ ঘণ্টায় ৮৩০ জন মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা ১৭ হাজার ৯৭২ জন। সিঙ্গাপুরে একদিনে ৭৮৮ জন মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা ২০ হাজার ১৯৮ জন। এ তিন দেশে সুস্থ হওয়ার সংখ্যা গড়ে চার হাজারের কাছাকাছি।









Leave a reply