যুক্তরাষ্ট্র-পাকিস্তান সামরিক ও গোয়েন্দা সম্পর্কে ফাঁটল

|

যুক্তরাষ্ট্রের সাথে সব ধরনের সামরিক সম্পর্ক এবং গোয়েন্দা তথ্য বিনিময় চুক্তি থেকে সরে দাঁড়িয়েছে পাকিস্তান। পাকিস্তানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী খুররাম দোস্তাগির খান বৃহস্পতিবার বিষয়টি জানান।

পাকিস্তান ট্রিবিউন’কে খুররাম বলেন, যুক্তরাষ্ট্র-পাকিস্তানের মধ্যে যে বিস্তর তথ্য আদান-প্রদান এবং নিরাপত্তার চুক্তি ছিল তা প্রত্যাহার করা হয়েছে।

তবে, সামরিক সহযোগিতা প্রত্যাহারের বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো নথি পায়নি বলে ‘ভয়েজ অব আমেরিকা’কে জানান পাকিস্তানে নিয়োজিত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত রিচার্ড স্লেনসার।

স্নায়ু যুদ্ধের সময় থেকেই পাকিস্তানের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের ঘনিষ্ট সম্পর্ক ছিল। ৯/১১ পর যুক্তরাষ্ট্রকে তালেবান নির্মূলে সহায়তা করেছিল পাকিস্তান। সেই থেকে যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ‘নন-ন্যাটো সহযোগীতে’ পরিণত হয় পাকিস্তান। বিগত ১৫ বছরে সামরিক সহযোগিতার নামে ৩৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার দিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র।

তবে ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতায় আসার পর পাকিস্তানের সাথে সম্পর্কের অবনতি হয় যুক্তরাষ্ট্রের। গত আগস্টে পাকিস্তান জঙ্গিবাদে মদদ দিচ্ছে বলে মন্তব্য করেন ট্রাম্প। এসময়, সামরিক সহায়তা কমানোর হুমকিও দেন তিনি।

আর এ বছরের প্রথম দিন পাকিস্তান সন্ত্রাসীদের আশ্রয় দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রকে ধোঁকা দিচ্ছে বলে অভিযোগ তোলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রেসিডেন্টের এই বাণীর পর গত বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের জন্য বরাদ্দকৃত সামরিক ও নিরাপত্তা তহবিল স্থগিতের ঘোষণা দেয় মার্কিন পরারাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

যমুনা অনলাইন: এএস/টিএফ

 

 









Leave a reply