আখাউড়া ইমিগ্রেশন দিয়ে ভারত ফেরত ১০ বাংলাদেশি কোয়ারেন্টাইনে

|

আখাউড়া প্রতিনিধি:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থলবন্দর দিয়ে ভারতে আটকে থাকা ১০ জন বাংলাদেশি দেশে ফিরেছেন। তাদের সরাসরি জেলার বিজয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে আখাউড়া-আগরতলা চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন সীমান্তপথে ভারত থেকে তারা বাংলাদেশে আসেন। এ সময় সীমান্তের নো-ম্যান্সল্যান্ডে তাদেরকে করোনাভাইরাস জীবাণুনাশক স্প্রে করা হয়।

ভারত থেকে ১০ জন বাংলাদেশি পাসপোর্টধারী যাত্রীর মধ্যে ৯ জন পুরুষ ও ১ জন নারী রয়েছে।
আগতদের মধ্যে ৭ জন গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার জালালাবাদ ইউনিয়নের খালিয়া গ্রামের বাসিন্দা। অন্য ৩ জনের মধ্যে ২ জন কুমিল্লার ও ১ জন চাঁদপুরের কচুয়া উপজেলার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

আখাউড়া স্থলবন্দর চেকপোস্ট ইমিগ্রেশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (এসআই) মো. আব্দুল হামিদ বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণ সন্দেহে ভারত থেকে আগত পাসপোর্টধারী যাত্রীদেরকে বাসায় না পাঠিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে তাদেরকে বিজয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে ১৪ দিন বাধ্যতামূলক থাকতেই হবে।

তিনি আরও বলেন, এ পথে ভারত থেকে আগত কোনও যাত্রীর করোনাভাইরাসের আলামত পাওয়া গেলে তাকে আইসোলেশনে রাখা হবে।

আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার রেইনা বলেন, পরবর্তী নির্দেশ না পাওয়া পর্যন্ত আখাউড়া স্থলবন্দর চেকপোস্ট ইমিগ্রেশন সীমান্ত পথে ভারত থেকে আগত সব যাত্রীকে জেলার
বিজয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে ১৪ দিন অবস্থান করতে হবে।
কেউ কোয়ারেন্টাইনে থাকার সিদ্ধান্ত অমান্য করতে পারবেন না। অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি জানান।









Leave a reply