ঈশ্বরদীতে বিষাক্ত অ্যালকোহল পানে ২ জনের মৃত্যু

|

ঈশ্বরদীতে বিষাক্ত অ্যালকোহল খেয়ে দুই ব্যক্তির মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।

নিহত ব্যক্তিরা হলেন- কেন্দ্রীয় বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ও ঈশ্বরদী পৌরসভার সাবেক মেয়র ও শেখ হাসিনার ট্রেনে গুলিবর্ষণ মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি মকলেছুর রহমান বাবলুর ছেলে ওহেদুর রহমান সজল (২৭) এবং তার বন্ধু ফতেমোহাম্মদপুর এলাকার মৃত সামুর ছেলে রাজু (৩২)।

রোববার রাত ৯টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাদের মৃত্যু।

নিহত সজলের ছোট ভাই মাহাদী রহমান শাহারাত মোবাইল ফোনে জানান, সন্ধ্যার কিছুক্ষণ পর তার ভাইয়ের হঠাৎ পেটে গ্যাসের প্রকট সমস্যা দেখা দেয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাতে ঈশ্বরদীর বাংলাদেশ রেলওয়ে সরকারি নাজিমউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনের হোমিও ওষুধ বিক্রেতা শিমুলের কাছ থেকে অ্যালকোহল কেনেন তারা। তা খাওয়ার একপর্যায়ে দুজনই রোববার সকালে অসুস্থ হয়ে পড়েন।

প্রথমে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসকদের পরামর্শে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন রোববার রাত ৯টায় দুজনের মৃত্যু হয়।

ফতেমোহাম্মদপুর ৫ নম্বর ওয়ার্ডের পৌর কাউন্সিলর কামাল আশরাফি সত্যতা স্বীকার করে জানান, তাদের লাশ রাজশাহীতে ময়নাতদন্ত শেষে আজ সোমবার দুপুর নাগাদ ঈশ্বরদী এসে পৌঁছবে।

ঈশ্বরদী থানার ওসি বাহাউদ্দীন ফারুকী দুজনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে বলেন, ‘অ্যালকোহলের সঙ্গে বিষাক্ত কোনো কিছু থাকতে পারে।’

ঈশ্বরদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. ফিরোজ কবির বলেন, ‘দুজনের মৃত্যুর খবর পেয়েছি। এ বিষয়ে এখনও কোনো অভিযোগ আসেনি। অ্যালকোহল খাওয়ার কারণেই তাদের মৃত্যু হয়েছে কিনা, তা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’









Leave a reply