করোনা আতঙ্কে হিন্দু বৃদ্ধের সৎকারে এলো না কেউ, শ্মশানে নিলো একদল মুসলিম যুবক

|

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসের প্রকোপ ক্রমেই বাড়ছে। আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ার পাশাপাশি বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। আতঙ্ক ছড়িয়েছে দেশে দেশে। অবস্থা এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে কেউ স্বাভাবিক কারণে বা অন্য কোনো রোগে মারা গেলেও ভাবা হচ্ছে করোনায় মারা গেছে। ফলে তার সৎকারে এগিয়ে আসছে না কেউ। এমন ঘটনাই ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহরে। খবর-সংবাদ প্রতিদিন।

বার্ধক্যজনিত কারণে মারা যান এলাকার বাসিন্দা রবিশংকর। কিন্তু প্রতিবেশীরা ধারণা করেন করোনায় তার মৃত্যু হয়েছে। ফলে তারা কেউই শেষ দেখাটুকুও দেখতে আসেন নি। আসেন নি আত্মীয় স্বজনরাও। এতে সৎকার নিয়ে বিপাকে পড়ে রবিশংকরের পরিবার।

পরে খবর পেয়ে এগিয়ে আসে পাশের গ্রামের একদল মুসলিম যুবক। তারাই রবিশংকরকে কাঁধে বহন করে শ্মশানে নিয়ে যান। এসময় মুসলিম যুবকরা মাথায় ফেজ টুপি পরে ‘রামনাম সত্য হ্যায়’ ধ্বনি দেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মুহূর্তের মধ্যেই ছড়িয়ে পড়ে দৃশটি। বাহাবা পাচ্ছেন মুসলিম যুবকরা। অনেক ব্যবহারকারী বলছেন, এটাই প্রকৃত ভারতবর্ষ।

সম্প্রতি দিল্লিতে হিন্দু-মুসলিম সংঘাত বেশ নাড়া দিয়েছিলো অনেককেই। কিন্তু বুলন্দশহরের এই দৃশ্য সেই ক্ষত মুছতে সহায়ক হবে বলেও ধারণা অনেক ভারতবাসীর।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply