বাউফলে একজন আইসোলেশনে, ২ ডাক্তারকে শোকজ

|

পটুয়াখালী প্র‌তি‌নি‌ধি:
ঢাকা থেকে অসুস্থ্য বাড়ি ফেরায় পটুয়াখালীর বাউফলে (নাজিরপুর ইউনিয়নের নিমদী গ্রামের) ২৫ বছরের এক যুবককে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।

গত ২২ মার্চ ঢাকা থেকে শরীরে জ্বর, কাশি, পেটব্যাথা নিয়ে লঞ্চযোগে বাউফ‌লের গ্রামের বাড়িতে আসে। প‌রে তার অবস্থার উন্ন‌তি না হ‌লে গতকাল বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নি‌য়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার আখতারুজ্জামান তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়।

পরে অসুস্থ্য ব্যক্তি তার নিজ বাড়িতে না গিয়ে পাশ্ববর্তী গ্রামের শ্বশুর বাড়িতে যায়। সেখানে গিয়ে বমি শুরু হলে স্থানীয় লোকজনের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিষয়টি অবগত হয়ে ডাক্তারদের সাথে কথা বলেন, পরবর্তীতে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অ্যাম্বুলেন্সে করে রাত ৯ টার দিকে বরিশাল পাঠানো হয়।

এ বিষয়ে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার সাহা বলেন, ওই রোগীর রোগ শনাক্তের জন্যে বরিশাল প্রেরণ করা হয়েছে । তার শরীরের বিভিন্ন ধরনের রোগ রয়েছে, তবে তার বিদেশ ফেরত কারও সাথে যোগাযোগের কোন খবর না পাওয়া যাওয়ায় তাকে প্রাথমিক ভাবে আইসোলেশনেও নেয়া হয়নি।

যেহেতু সে এখন বমি করছে পেট ব্যাথা আছে সাথে জ্বর সর্দিও আছে তাই নিশ্চিত হওয়ার পরীক্ষার জন্য বরিশাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে এবং সেখানে তাকে করোনা ইউনিটের আইসোলেশন ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে বাউফল উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকির হোসেন বলেন, ওই রোগীর শরীরের উপসর্গের কথা চিকিৎসক অবহিত করার পরে তাকে দ্রুত বরিশালে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এবং তার শশুরবাড়ির এবং নিজ বাড়ির সকল লোকজনকে কোয়ারেন্টাইনে নেয়ার পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

এ বিষেয়ে পটুয়াখালীর সিভিল সার্জন ডা: মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, করোনা ন্যাশনাল প্রটোকল অনুযায়ী বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকৎসক ডা: মো: আখতারুজ্জামান ওটিএইচও প্রশান্ত কুমার সাহাকে সঠিক ভাবে দায়িত্ব পালন না করায় উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে তাদের শোকজ করা হয়েছে এছাড়া ও ডা: আখতারুজ্জামানকে এবং এম্বুলেন্স চালককে হোম কোয়রাইন্টাইনে নেয়া হয়েছে এছাড়াও এম্বুলেন্সটি জীবানুমুক্ত করার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে।









Leave a reply