মরিচ ক্ষেতের পাশে ইট রাখাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, আহত ৩০

|

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে মরিচ ক্ষেতের পাশে ইট রাখাকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে নারী ও শিশুসহ প্রায় ৩০ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। গুরুতর আহত অবস্থায় একজনকে জেলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ঘটনাটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার গোয়ালনগর ইউনিয়নের সোনাতলা গ্রামে।

এদিকে সংঘর্ষ চলাকালে উভয় পক্ষের বেশ কয়েকটি বাড়িতে ভাঙচুর ও মালামাল লুটের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, রবিবার দুপুরে মতি মিয়া ইটভাটা থেকে ইট এনে মাহমুদা বেগমের মরিচ ক্ষেতের পাশে রাখে। মাহমুদা বাঁধা দিলে দুপক্ষের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। বিষয়টি গ্রামের দুপক্ষের লোকদের মাঝে জানাজানি হলে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। পরে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের সহযোগিতা বিষয়টি নিষ্পত্তির চেষ্টা করা হলে উভয় পক্ষ নিজ নিজ বাড়িতে চলে যায়।

সোমবার সকালে উভয় পক্ষ দেশিয় অস্ত্র নিয়ে আবারও সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। এসময় উভয় পক্ষের নারী ও শিশুসহ কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়। খবর পেয়ে চাতলপাড় ফাঁড়ির ইনচার্য রঞ্জন কুমার ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

গোয়ালনগর ইউপি চেয়ারম্যান মো. আজহারুল জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সংঘর্ষ হয়। আমারা বিষয়টি স্থানীয়ভাবে মিমাংসা করার চেষ্টা করেছি। কিন্তু সোমবার সকাল বেলা উভয়পক্ষ সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।

এই ব্যাপারে চাতাল ফাড়ি ইনর্চাজ পুলিশ পরিদর্শক রঞ্জন কুমার জানান পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।









Leave a reply