কেউ আসন ছাড়লো না, বাসে দাঁড়িয়ে থেকে মারা গেলেন গর্ভবতী নারী

|

ভারতের কেরালায় অমানবিক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন এক গর্ভবতী নারী। নাদিশাহ নামের ওই নারী ছিলেন ৮ মাসের অন্তঃসত্তা। বাড়ি ফেরার পথে বাসে উঠেন। কিন্তু বাসের কোন সিট খালি না থাকায় দরজার কাছেই দাঁড়িয়ে থাকেন। তার এরকম অবস্থা দেখেও বাসের কেউ আসন ছেড়ে দেয়নি। তাই বাধ্য হয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে হয় তাকে। এভাবে কিছুদূর যাওয়ার পর চালক দ্রুত চালিয়ে টার্ন নিতে গেলে নাদিশাহ ভারসাম্য হারিয়ে বাস থেকে পড়ে যান। মাথায় প্রচণ্ড আঘাত লাগে। পরে হাসপাতালে নেয়া হলে মারা যান নাদিশাহ। তবে সৌভাগ্যবশত ডাক্তাররা তার শিশু সন্তানটিকে বাঁচাতে সক্ষম হন। শিশুটিকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয়েছে।

এদিকে দুর্ঘটনার পর অনেকে সমালোচনায় সরব হয়েছেন- কেনো একজন অন্তঃসত্ত্বা নারীর জন্য আসন ছেড়ে দেয়া হয়নি। কারণ ভারতের মোটর আইন অনুযায়ী প্রতিটি বাসে অবশ্যই গর্ভবতী নারীর জন্য একটি আসন সংরক্ষিত রাখতে হবে। অনেকে বলছেন, মানুষের মানবিক গুনাবলী  কত দ্রুত ক্ষয়ে যাচ্ছে এই দুর্ঘটনা তা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দেয়।

স্থানীয় পুলিশ জানায়, বাসের গেট খোলা রেখে গাড়ি চালানো মোটর আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ, বাসের চালককে অতিরিক্ত গতিতে গাড়ি চালানো ও অবহেলায় একজন নারীর মৃত্যুর দায়ে গ্রেফতার করা হয়েছে।  বাসও জব্ধ করা হয়েছে।

টিবিজেড/









Leave a reply