পটুয়াখালীতে আবাসিক হোটেল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ, এনজিওর কিস্তি আদায় স্থগিত

|

পটুয়াখলী প্রতিনিধি:
করোনাভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে পটুয়াখালীর একমাত্র যৌনপল্লীতে সকলের যাতায়াত নিষিদ্ধ এবং সকল এনজিওর ঋণ আদায় কার্যক্রম সাময়িক স্থগিতসহ জেলার সকল আবাসিক হোটেল অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন।

পৌরসভার জরুরী সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক আজ থেকে এ ঘোষণা কার্যকর করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সদর পুলিশ ফাঁড়ির টিএসআই দেলোয়ার হোসেন।

পৌর মেয়র মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, করোনাভাইরাসের ঝুঁকির সংক্রমণ এড়াতে এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। পটুয়াখালী পতিতালয়ের ১৩৭ জন অধিবাসীকে আগামী ২৫ তারিখ থেকে রান্না করা খাবার সরবরাহ করার চেষ্টা চলছে বলেও তিনি জানান।

এদিকে করোনার প্রভাবে প্রান্তিক মানুষের জীবন ও জীবিকায় প্রভাব পড়ার কারণে পটুয়াখালী জেলায় কার্যক্রম পরিচালনাকারী সকল এনজিওর ঋণ আদায় কার্যক্রম পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত সাময়িক স্থগিত করার ঘোষণা দিয়েছেন পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসন।

এছাড়াও এনজিও কর্তৃক পরিচালিত বিভিন্ন সভা বৈঠকও নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। পরবর্তী ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত এ আদেশ বলবৎ থাকবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

অপরদিকে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জেলা প্রশাসনের নির্দেশক্রমে জেলার হোটেল-মোটেল অভিযান চালিয়ে আট হাজার টাকা জরিমানা করেছেন জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত। সোমবার দুপুর পর্যন্ত বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে অভিযান চালায় প্রশাসন।

এ সময় হোটেল মালিকদের সাথে নিয়ে হোটেলে কোন করোনাভাইরাস আক্রান্ত ব্যক্তি আছে কিনা তা খতিয়ে দেখে এবং তিনটি হোটেল থেকে মোট আট হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অমিত রায় জানান, প্রথমবার আবাসিক হোটেল ব্যবসায়ীদের আর্থিক জরিমানা করে আল্টিমেটাম দেয়া হচ্ছে। পরবর্তীতে অনিয়ম করলে অর্থদণ্ডের পাশাপাশি আবাসিক হোটেলগুলো সিলগালা করে দেওয়া হবে।









Leave a reply