টাঙ্গাইলে কোয়ারেন্টাইন না মানায় ৪ যুবককে জরিমানা

|

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:
হোম কোয়ারেন্টাইন না মানার অভিযোগে টাঙ্গাইলে পৃথক স্থানে সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়া ফেরত ৪ যুবককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার রাতে বাসাইল উপজেলায়, সন্ধ্যায় গোপালপুর উপজেলায়, এবং সকালে সখীপুর উপজেলায় এ জরিমানা আদায় করা হয়। এদের মধ্যে সিঙ্গাপুর ফেরত ২ যুবককে ১০ হাজার টাকা করে ও আরেক জনকে ২০ হাজার টাকা এবং মালয়েশিয়া ফেরত অপর আরেক যুবককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অর্থদন্ডপ্রাপ্তরা হলেন সিঙ্গাপুর ফেরত হাবিবুর রহমান (৩৬) গোপালপুর উপজেলার ধোপাকান্দি ইউনিয়নের গাড়ালিয়া গ্রামের শামছুল হকের ছেলে, হামিদুল ইসলাম (৩৬) সখীপুর উপজেলার কাকরাজান ইউনিয়নের বৈলারপুর গ্রামের সেলিম মিয়ার ছেলে, বাসাইল উপজেলার ইকবাল খান (৩৮) কাশিল পশ্চিম পাড়া গ্রামের আব্দুল মজিদ খানের ছেলে এবং অপরজন মালয়েশিয়া ফেরত সখীপুর উপজেলার দাড়িয়াপুর গ্রামের বাসিন্দা।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গত সোমবার হাবিবুর রহমান সিঙ্গাপুর থেকে দেশে আসেন। পরে তিনি গ্রামের বাড়ি গোপালপুরে চলে আসেন। আসার পর তাকে হাসপাতাল এবং উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেয়া হয়। কিন্তু তিনি সেটা না মেনে জনসন্মুখে স্থানীয় শাহজাহানপুর বাজারে ঘোরাফেরা করছিলেন। এ কারণে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিকাশ বিশ্বাস ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা করেন। একই সাথে তাকে কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

অপরদিকে গত ৭ মার্চ সখীপুর উপজেলার হামিদুল ইসলাম সিঙ্গাপুর থেকে দেশে আসেন। এর পর তার সাথে হাসপাতাল, উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করে কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দেয়া হয়। কিন্তু তিনিও সেটা না মেনে বুধবার সকালে জনসন্মুখে ঘোরাফেরা করছিলেন। এ কারণে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসমাউল হুসনা লিজা।

এছাড়া বিকেলে একই উপজেলার মালয়েশিয়া ফেরত আরেক প্রবাসীকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হা-মীম তাবাসসুম প্রভা। তিনি গত ১২ মার্চ দেশের বাড়ি দাড়িয়াপুর গ্রামে আসেন। বিদেশ থেকে এসে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার জন্য সরকারের তরফ থেকে সবাইকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তিনি সেই নির্দেশ অমান্য করে কোয়ারেন্টাইনে না থেকে বাজারে ঘোরাঘুরি করছিলেন।

এলাকাবাসীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল মঙ্গলবার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবদুস সোবহান তাঁকে ফোন দিয়ে বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে বলেন। এ সময় ওই প্রবাসী এই কর্মকর্তার সঙ্গে খারাপ আচরণ করেন। পরে বিকেলে সখীপুর থানার পক্ষ থেকে তাঁকে ফোন দিলে তিনি ‘হোম কোয়ারেন্টাইনে’ থাকতে অপারগতা জানান। পরে তাকে জরিমানা করা করা হয়।

অন্যদিকে একই কারণে সিঙ্গাপুর থেকে আসা বাসাইল উপজেলার ইকবাল খানকে (৩৮) ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বিকেলে আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার শামছুন্নাহার স্বপ্না এই জরিমানা আদায় করেন।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply