জমির বায়না করায় এএসপির রোষানলে পড়লেন ব্যবসায়ী!

|

নরসিংদী প্রতিনিধি:

নরসিংদীর পলাশে এক ব্যবসায়ীকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে ঢাকা জোনের এক পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী মোরশেদ পলাশ বাজারের একজন কাপড় ব্যবসায়ী।

শনিবার (১৪ মার্চ) দুপুরে নরসিংদীর পলাশ উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার পলাশ বাজার গ্রামে ওই এএসপির নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

পরে আহত অবস্থায় স্থানীয়রা ওই ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। আহত ব্যবসায়ী মোরশেদের মাথায় ৭ টি সেলাই দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভুক্তভোগী মোরশেদ জানান, ১৫ দিন আগে পলাশের সাবেক ইসলাম চেয়ারম্যানের স্ত্রী মরিয়ম বেগমের কাছ থেকে পলাশ বাজার এলাকায় সাড়ে ৬ শতাংশ সম্পত্তি ৪২ লাখ টাকায় কিনার জন্য কথাবার্তা ঠিক করি। পরে ওই সম্পত্তি কিনার জন্য দুই ধাপে ২০ লাখ টাকা বায়না করি। আগামী এক মাসের ভেতরে পুরো টাকা পরিশোধ করে ওই সম্পত্তি আমার নামে দলিল করার কথা। কিন্তু আমি জানতাম না যে, এই সম্পত্তির উপর আগে থেকেই এএসপি জ্যোতির্ময় সাহার নজর ছিল। তিনি এই সম্পত্তি কিনতে চান এমন কোন কথাও আগে কখনো স্থানীয়দের বা প্রতিবেশীদের কাছে বলেননি।

মোরশেদ জানান, শনিবার দুপুরে আমার দোকানে লোক পাঠিয়ে এএসপি জ্যোতির্ময় সাহার কথা বলে আমাকে ওনার বাড়িতে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে যাওয়ার পর প্রথমেই জ্যোতির্ময় সাহা আমাকে বাপ-মা তুলে গালাগালি শুরু করেন। এক পর্যায়ে আমার গালে থাপ্পড় মারার সাথে সাথে ওনার রুমে থাকা জাকির ও শাহিন নামে দুজন আমাকে লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটানো শুরু করে।

আমাকে পিটানোর সময় এএসপি জ্যোতির্ময় সাহা বলতে থাকেন,‘তোর এতো বড় সাহস? আমি যে সম্পত্তি কিনার জন্য ঘুরতেছি তুই সে সম্পত্তি বায়না করার সাহস পাইলি কই? তোর এতো টাকা আসলো কোথা থেকে? কোথায় পেলি সেই সাহস?।’ তাদের মারপিটের একপর্যায়ে আমি অজ্ঞান হয়ে পড়ি। এরপর জ্ঞান ফিরলে দেখি আমি হাসপাতালে ভর্তি।

এ বিষয়ে জানতে এএসপি জ্যোতির্ময় সাহা অপুর ব্যক্তিগত মুঠোফোনে ফোন করা হলে অপুর খালাত ভাই পরিচয় দিয়ে রনি নামের এক যুবক ফোন রিসিভ করে জানান, উনি ঘুমাচ্ছেন। ওনার সাথে কথা বলতে হলে ২ ঘণ্টা পর কল দিন। এরপর কয়েক ঘণ্টায় একাধিক নাম্বার থেকে ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

এ ব্যাপারে পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মো. নাসির উদ্দিন জানান, পলাশ বাজারের এক ব্যবসায়ীকে পিটানোর খবর পেয়ে হাসপাতালে পুলিশকে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply